ঢাকা রবিবার, ১৯ মে ২০২৪

গভীর রাতে আলীকদমেও সন্ত্রাসী হামলা

গভীর রাতে আলীকদমেও সন্ত্রাসী হামলা

আলীকদম উপজেলার ২৬ মাইলের ডিম পাহাড় এলাকার চেকপোস্টে হামলা হয়। ছবি: গুগল ম্যাপ থেকে নেওয়া

সমকাল প্রতিবেদক

প্রকাশ: ০৫ এপ্রিল ২০২৪ | ০৩:৫৭ | আপডেট: ০৫ এপ্রিল ২০২৪ | ০৪:২৭

বান্দরবান জেলার রুমা ও থানচি উপজেলার পর এবার আলীকদমে পুলিশ ও সেনাবাহিনীর একটি যৌথ তল্লাশি চৌকিতে হামলা চালিয়েছে অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীরা। এ ঘটনায় কেউ হতাহত হয়নি। শুক্রবার রাত পৌনে ২টার দিকে উপজেলার ২৬ মাইলের ডিম পাহাড় এলাকায় এ হামলা হয়।

বিষয়টি সমকালকে নিশ্চিত করেছেন আলীকদম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তবিদুর রহমান। তিনি বলেন, উপজেলার ২৬ মাইলের ডিম পাহাড় এলাকায় সন্ত্রাসীরা গাড়িতে করে এসে তল্লাশি চৌকি ভেঙে এগিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। বাধা দিলে তারা গুলি চালায়। এ সময় পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। পরে হামলাকারীরা সেখান থেকে পিছু হটে। এ ঘটনায় কেউ হতাহত হয়নি।

এর আগে বৃহস্পতিবার রাত ৯টার দিকে জেলার থানচি উপজেলায় পাহাড়ের সশস্ত্র গোষ্ঠী কুকি-চিন ন্যাশনাল ফ্রন্টের (কেএনএফ) সঙ্গে পুলিশ ও বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) সদস্যদের ব্যাপক গোলাগুলির ঘটনা ঘটে। রাত ১১টার দিকে গোলাগুলি থামলেও সেখানে থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে।

এদিকে রুমায় অপহৃত সোনালী ব্যাংকের ম্যানেজার নিজাম উদ্দিনকে উদ্ধার করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৭টার দিকে রুমা বাজার এলাকা থেকে তাকে উদ্ধার করা হয়। র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

গত মঙ্গলবার রাত ৮টার দিকে রুমা উপজেলা প্রশাসন ভবনে হামলা চালায় একদল সশস্ত্র গোষ্ঠী। এ সময় সন্ত্রাসীরা সোনালী ব্যাংকের কর্মকর্তা, নিরাপত্তারক্ষীসহ অন্তত ২০ জনকে মারধর করে ব্যবস্থাপক নেজাম উদ্দিনকে অপহরণ করে বলে জানান রুমা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ শাহজাহান। তিনি বলেন, তারা এই সময় ব্যাংকের নিরাপত্তায় নিয়োজিত পুলিশ ও আনসার ভিডিপির দুটি এসএমজি, ৬০ রাউন্ড গুলি, আটটি চীনা রাইফেল, ৩২০ রাউন্ড গুলি এবং আনসারের চারটি শর্টগান ও ৩৫ রাউন্ড গুলি লুট করে।

রুমা উপজেলার ভারপ্রাপ্ত নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) দিদারুল আলম সমকালকে জানিয়েছেন, নিজাম উদ্দিন সুস্থ আছেেন। এখন তিনি রুমায় রয়েছেন। 

আরও পড়ুন

×