ঢাকা সোমবার, ২০ মে ২০২৪

বিপদে পড়া মানুষের পাশে দাঁড়ালেই তারা মনে রাখে

বিপদে পড়া মানুষের পাশে দাঁড়ালেই তারা মনে রাখে

ম্যাপ

মুনসী লিটন, খোকসা (কুষ্টিয়া) 

প্রকাশ: ১১ মে ২০২৪ | ১২:২৬

প্রথম ধাপে অনুষ্ঠিত খোকসা উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে আবারও নির্বাচিত হয়েছেন জেলা মহিলা দলের বহিষ্কৃত সিনিয়র সহসভাপতি ইসরাত জাহান পুনম। এটা তাঁর টানা চতুর্থ বিজয়। 

ভোটারদের চাওয়ায় দলীয় সিদ্ধান্তের বাইরে গিয়ে আবারও ভাইস চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করেন পুনম। এ কারণে তাঁকে বিএনপি থেকে বহিষ্কার করা হয়। দল তাঁকে বহিষ্কার করলেও ভোটাররা তাঁকে বিপুল ভোটে বিজয়ী করেছে। গত ৮ মে অনুষ্ঠিত উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ৫১ হাজার ৫২৭ ভোট পেয়েছেন পুনম। উপজেলার ৫০টি ভোটকেন্দ্রের সবক’টিতে প্রথম হয়েছেন। প্রতিটি কেন্দ্রে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর চেয়ে ৫শ থেকে ১৫শ ভোট বেশি পেয়ে নির্বাচিত হন তিনি। 

দেশের প্রথম মহিলা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান রাবেয়া খাতুন ও খোকসা পৌরসভার প্রথম মেয়র আনোয়ার আহমেদ তাতারী দম্পতির পুত্রবধূ পুনম। শ্বশুরের অনুপ্রেরণায় বিয়ের ৮ বছরের মাথায় ২০০৯ সালে প্রথমবার উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে নির্বাচনে অংশ নেন। সে বছর প্রায় ৩৩ হাজার ভোট পেয়ে তিনি নির্বাচিত হন। একই পদে ২০১৪ ও ২০১৯ সালের নির্বাচনেও বিপুল ভোটের ব্যাবধানে নির্বাচিত হন তিনি। 

নির্বাচনে বারবার বিপুল ভোটে জয়ী হওয়া প্রসঙ্গে পুনম বলেন, প্রয়াত শ্বশুরের আদেশ মেনে তিনি বিপদে পড়া মানুষের পাশে দাঁড়াতে ভালোবাসেন। এ কারণেই নির্বাচনে ধারাবাহিক জয় পেয়ে চলেছেন। বিপদে পড়া মানুষ যাতে ছুটে আসতে পারেন, সে জন্য তাঁর বাড়ির প্রধান দরজা সবসময় খোলা রাখেন। কেউ এলে তাঁকে কিছু না দিতে পারলেও তাঁর কথা শোনার সময় দেন। দল-মত নির্বিশেষে কেউ সমস্যায় পড়লে তাঁর কাছে ছুটে আসেন। এসব মানুষকে কিছু করতে না পারলেও সমবেদনা নিয়ে পাশে দাঁড়ালেই মানুষ মনে রাখে। 

জেলা মহিলা দল থেকে বহিষ্কার সম্পর্কে তাঁর ভাষ্য, বিরোধী পক্ষ তদবির করে তাঁকে অপদস্থ করতেই বহিষ্কারের নাটক সাজিয়েছে। এ আদেশের ফলে তাঁর ভোটাররা সংগঠিত হয়েছে। দলমত বিবেচনা না করে আনোয়ার খানের পুত্রবধূ হিসেবে তাঁকে ভোট দিয়েছে। বারবার ভোট দিয়ে নির্বাচিত করায় এলাকার জনসাধারণের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান পুনম।

আরও পড়ুন

×