ঢাকা শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪

আলোর মুখ দেখতে যাচ্ছে ফিরিঙ্গীটিলা সেতু

আলোর মুখ দেখতে যাচ্ছে ফিরিঙ্গীটিলা সেতু

বানিয়াচংয়ের পৈলারকান্দির এই পুরোনোটি ভেঙে করা হবে ফিরিঙ্গীটিলা সেতু। ছবি: সমকাল

 বানিয়াচং (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি

প্রকাশ: ১১ মে ২০২৪ | ১২:৩৭

শিগগিরই ৪ কোটি টাকা ব্যয়ে শুরু হতে যাচ্ছে ১৫ নম্বর পৈলারকান্দি ইউনিয়নের কুমড়ি দুর্গাপুর-নজরপুরের ফিরিঙ্গীটিলা সেতুর নির্মাণকাজ। সেতুটি নির্মাণ হলে দীর্ঘদিনের দুর্ভোগ লাঘব হবে এলাকাবাসীর। জানা যায়, প্রায় ৫০ বছর আগে তৈরি হওয়া কুমড়িবাজারসংলগ্ন সেতুটি চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়ার পর সেখানে নতুন করে একটি সেতু নির্মাণের প্রয়োজনীয়তা দেখা দেয়।

হবিগঞ্জ জেলার বানিয়াচং এবং কিশোরগঞ্জ জেলার অষ্টগ্রাম উপজেলার মধ্যে সংযোগ ঘটানো এই সেতুর এ পারে দুর্গাপুর-কুমড়ি-নজরপুর বাজার এবং অপর পারে কদমচাল-ফিরিঙ্গীটিলা-মনোহরপুর গ্রাম। স্বাধীনতার পরবর্তী কয়েক দশক ধরে নদীর এপার-ওপার মিলিয়ে এ এলাকার হাজার হাজার মানুষের হাট-বাজার, যোগাযোগ ও নিত্যপ্রয়োজনীয় কাজে সেতুটি আশীর্বাদস্বরূপ। বর্ষাকালে নদী পারাপারে একমাত্র ভরসা এই সেতু। বর্তমানে এর অবস্থা শোচনীয় হওয়ায় যোগাযোগে অনেকটাই ভাটা পড়েছে। এ সেতুর ওপর দিয়ে প্রতিদিনই ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করছে পথচারী। যে কোনো সময় ঘটতে পারে দুর্ঘটনা।

স্থানীয়রা বলেন, এ জায়গাটিতে একটি সেতু নির্মাণের জন্য এলাকাবাসী দীর্ঘদিন ধরে দাবি জানিয়ে আসছিল। সুফল পাওয়া যায়নি। তাদের দাবি, ভাঙাচোরা ঝুঁকিপূর্ণ সেতুটি অপসারণ করে ওই স্থানে নতুন সেতু নির্মাণের।  তাদের সে দাবি পূরণ হতে চলেছে।

সংসদ সদস্য ময়েজ উদ্দিন শরীফ রুয়েল জানান, এ সেতু নির্মাণে ছিল তাঁর নির্বাচনী ওয়াদা। ইতোমধ্যে ফিরিঙ্গীটিলার পুরোনো সেতু ভেঙে নতুন করে একটি সেতু নির্মাণ করতে ৪ কোটি টাকা ব্যয় দেখিয়ে চাহিদাপত্র দেওয়া হয়েছে। আশা করা যাচ্ছে দ্রুতই দুই উপজেলাবাসীর যোগাযোগের নতুন দিগন্ত উন্মোচন হবে। স্বপ্ন পূরণ হবে তাদের।

আরও পড়ুন

×