ঢাকা শনিবার, ১৮ মে ২০২৪

পোস্টমাস্টারের অস্বাভাবিক মৃত্যু হত্যার অভিযোগ মায়ের

পোস্টমাস্টারের অস্বাভাবিক মৃত্যু হত্যার অভিযোগ মায়ের

ম্যাপ

কুমারখালী (কুষ্টিয়া) প্রতিনিধি 

প্রকাশ: ১১ মে ২০২৪ | ১২:৪৫

কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলার বাঁশগ্রাম সাব-পোস্ট অফিসের পোস্টমাস্টার মো. রবিউল ইসলামের অস্বাভাবিক মৃত্যুর ঘটনাকে খুন হিসেবে দাবি করে সংবাদ সম্মেলন করেছেন রবিউলের মা রোকেয়া খাতুন। শুক্রবার দুপুরে নিজ বাড়িতে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ অভিযোগ করেন।  

সংবাদ সম্মেলনে রোকেয়া খাতুন বলেন, প্রায় ৩০ বছর আগে বানিয়াখড়ি গ্রামের মৃত আদিল উদ্দিন শেখের মেয়ে মোছা. মাহফুজা আক্তার রুলির সঙ্গে তাঁর একমাত্র সন্তান মো. রবিউল ইসলামের বিয়ে দেন। বিয়ের পর থেকেই রুলি তাঁর ছেলেকে শারীরিক ও মানসিকভাবে নির্যাতন করত। দাম্পত্য জীবনে রবিউলের তিন সন্তান ও এক জামাই ছিল। সম্পত্তির লোভে প্রায়ই স্ত্রী, সন্তান ও জামাই রবিউলকে নির্যাতন করত। 

নির্যাতনের ধারাবাহিকতায় গত ৪ মে রাত ৮টার দিকে তারা নিজ বাড়ির ছাদে রবিউলকে ব্যাপক মারধর করে ধানক্ষেতে দেওয়া কীটনাশক পান করায়। পরে তিনি ছেলের গোঙানি শুনে প্রতিবেশীদের সহায়তায় ছেলেকে উদ্ধার করে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করেন। সেখানে রবিউলের শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে পরদিন সকালে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে ছেলের মৃত্যু হয়।

রোকেয়া আরও বলেন, মৃত্যুর আগে রবিউল ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাসে লিখে গেছে, তাঁর মৃত্যুর জন্য দায়ী স্ত্রী রুলি, বড় মেয়ে ঋতু (২৫), ছেলে বন্ধন (২০) ও ছোট মেয়ে সেতু (১৫), জামাতা মিলন (৩৩) ও স্ত্রীর বড় বোন বেলি (৫৫)। তিনি আসামিদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির প্রত্যাশায় থানায় মামলা করেছেন। এ ঘটনায় রবিউলের স্ত্রী কারাগারে এবং জামাতা ও সন্তানরা আত্মগোপনে থাকায় তাদের বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি। 

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা কুমারখালী থানার উপপরিদর্শক সুব্রত বিশ্বাস বলেন, রবিউলের মায়ের দায়ের করা আত্মহত্যার প্ররোচনা মামলায় তাঁর স্ত্রীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অন্য আসামিদের গ্রেপ্তারে অভিযান চলমান রয়েছে। তদন্ত কার্যক্রম চলছে। তদন্ত কার্যক্রম শেষ হলে এ বিষয়ে বিস্তারিত বলা সম্ভব হবে। 

আরও পড়ুন

×