ঢাকা বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪

স্ত্রীর রাগ ভাঙাতে শ্বশুরবাড়ি গিয়ে যুবক খুন

স্ত্রীর রাগ ভাঙাতে শ্বশুরবাড়ি গিয়ে যুবক খুন

প্রতীকী ছবি

গাজীপুর ও টঙ্গী প্রতিনিধি

প্রকাশ: ১১ মে ২০২৪ | ২২:৪৬

গাজীপুরে এক যুবককে তাঁর স্ত্রী, শ্বশুর ও শ্যালক পিটিয়ে হত্যা করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। স্ত্রীর রাগ ভাঙাতে শ্বশুরবাড়ি গিয়ে খুন হন তিনি। এ ঘটনায় অভিযুক্ত ৪ জনকে শুক্রবার রাতে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

গ্রেপ্তার ব্যক্তিরা হলো– নিহত রবিউল ইসলামের (২৮) স্ত্রী কারিমা আক্তার (২২), শ্বশুর আবুল কালাম আজাদ (৪৫), শ্যালক হুমায়ুন কবির (১৯) ও প্রতিবেশী লিটন মিয়া (৪৬)।

জানা যায়, কেনাকাটা নিয়ে স্বামী রবিউলের সঙ্গে ঝগড়া করে স্ত্রী কারিমা চার মাস আগে তার বাবার বাড়ি চলে যায়। গাজীপুর মহানগরের টঙ্গী এরশাদ নগর এলাকার তুহিন তালুকদারের ছেলে রবিউল গত রোববার রাতে মহানগরের পুবাইল এলাকায় তাঁর শ্বশুরবাড়ি যান। সেখানেও স্ত্রীর সঙ্গে বাগ্বিতণ্ডা হয় রবিউলের। এক পর্যায়ে স্ত্রী কারিমা, শ্বশুর আজাদ ও শ্যালক হুমায়ূনসহ বাড়ির লোকজন লোহার রড দিয়ে রবিউলকে বেদম পিটুনি দেয়। রক্তাক্ত রবিউল গুরুতর আহত অবস্থায় নিজের বাড়ি ফিরে আসেন। পরে তাঁকে টঙ্গীর শহীদ আহসানউল্লাহ মাস্টার জেনারেল হাসপাতাল ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবনতি হলে গত বৃহস্পতিবার রাতে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে তাঁর মৃত্যু হয়।

পুবাইল থানার ওসি কামরুজ্জামান জানান, শুক্রবার রাতে নিহত রবিউলের বাবা তুহিন তালুকদার হত্যা মামলা করেন। পরে পুলিশ আসামিদের গ্রেপ্তারে অভিযানে নামে। রাতেই রবিউলের স্ত্রী কারিমা, শ্বশুর কালাম, শ্যালক হুমায়ূনসহ ৪ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়। গতকাল শনিবার দুপুরে আদালতের মাধ্যমে তাদের কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

স্থানীয়রা জানান, শেরপুরের শ্রীবর্দী থানার বালুঘাট এলাকার আবুল কালাম আজাদের পরিবার গাজীপুর সিটি করপোরেশনের পুবাইলের সাতানীপাড়া এলাকায় আব্দুল গফুরের বাড়িতে ভাড়ায় বসবাস করে। ওই বাড়িতেই এ ঘটনা ঘটে।

রবিউলের স্বজনরা জানান, গত ঈদের আগে কেনাকাটা নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া হয়। পরে তাঁর স্ত্রী রাগ করে বাবার বাড়ি চলে যায়। স্ত্রীর রাগ ভাঙাতে গিয়ে শেষ পর্যন্ত হত্যার শিকার হলেন রবিউল। 

আরও পড়ুন

×