ঢাকা রবিবার, ২৬ মে ২০২৪

কোদাল দিয়ে স্ত্রীকে হত্যা, ৪ বছর পর যাবজ্জীবন

কোদাল দিয়ে স্ত্রীকে হত্যা, ৪ বছর পর যাবজ্জীবন

প্রতীকী ছবি

খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি

প্রকাশ: ১৪ মে ২০২৪ | ২০:৪৯ | আপডেট: ১৪ মে ২০২৪ | ২০:৫১

স্ত্রীকে হত্যার চার বছর পরে অনন্ত ত্রিপুরা নামে এক ব্যক্তিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। সোমবার (১৩ মে) খাগড়াছড়ি সিনিয়র জেলা ও দায়রা জজ আব্দুল্লাহ আল মামুন এ রায় ঘোষণা করেন। 

এছাড়া অনন্ত ত্রিপুরাকে ৫০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড ও অনাদায়ে আরও তিন মাসের জেল দেওয়া হয়। রায় ঘোষণার সময় তিনি আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, ২০২০ সালের ১৮ এপ্রিল বিকেল সাড়ে তিনটার দিকে খাগড়াছড়ি জেলার রামগড় উপজেলার রশ্বিয়াপাড়া গ্রামে পারিবারিক তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে অনন্ত ত্রিপুরা তার স্ত্রী রন্দাবালা ত্রিপুরাকে কোদাল দিয়ে মাথায় আঘাত করলে তার মৃত্যু হয়। ঘটনা ধামাচাপা দিতে ওই দিন সন্ধ্যায় অনন্ত ও তার স্বজনরা মিলে মরদেহ দাহ করে শেষকৃত্য সম্পন্ন করে। এ ঘটনা জানতে পেরে ঘটনার দুই দিন পর রন্দাবালা ত্রিপুরার বাবা রাজকুমার ত্রিপুরা বাদী হয়ে রামগড় থানায় হত্যামামলা দায়ের করেন।

২০২১ সালের সেপ্টেম্বর মাসে পুলিশ জিআর (রামগড়) মামলার চার্জশিট দাখিল করে। খাগড়াছড়ি জেলা ও দায়রা জজ আদালতের পিপি বিধান কানু গো বলেন, খুনের ঘটনা ধামাচাপা দিতে পুড়িয়ে ফেলার ফলে পোস্টমর্টেম সম্ভব হয়নি। কিন্তু ঘটনার পারিপার্শ্বিকতা বিশ্লেষণ ও সাক্ষ্য-প্রমাণ পর্যালোচনা করে রায় প্রদান করা হয়।

আরও পড়ুন

×