ঢাকা রবিবার, ১৯ মে ২০২৪

হুইপ নজরুলের বিরুদ্ধে ইসিতে চেয়ারম্যান প্রার্থীর অভিযোগ

হুইপ নজরুলের বিরুদ্ধে ইসিতে চেয়ারম্যান প্রার্থীর অভিযোগ

প্রতীকী ছবি

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি

প্রকাশ: ১৫ মে ২০২৪ | ১০:২২ | আপডেট: ১৫ মে ২০২৪ | ১০:২৪

জাতীয় সংসদের হুইপ ও নারায়ণগঞ্জ-২ আসনের চারবারের সংসদ সদস্য নজরুল ইসলাম বাবুর বিরুদ্ধে গত সোমবার নির্বাচন কমিশনে অভিযোগ দিয়েছেন আড়াইহাজার উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী শাহজালাল মিয়া। 

কমিশনে নজরুলের বিরুদ্ধে পছন্দের প্রার্থীর পক্ষ নিয়ে ভোটারদের প্রভাবিত করার চেষ্টা এবং প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর সম্ভাব্য পোলিং এজেন্টদের হুমকি দেওয়ার অভিযোগ করেছেন শাহজালাল।

আড়াইহাজার উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে দোয়াত-কলম প্রতীকে লড়ছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি শাহজালাল মিয়া। এর আগে দুইবার উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন তিনি। এ নির্বাচনে তাঁর প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন আনারস প্রতীকে উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক কাজী সুজন ইকবাল এবং ঘোড়া প্রতীকে উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলাম স্বপন।

তপশিল ঘোষণার পর চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের ৯ জন নেতাকর্মী প্রার্থিতার ঘোষণা দিলেও শেষ পর্যন্ত তিনজন নির্বাচনের মাঠে আছেন। বাকিরা সরে দাঁড়িয়েছেন।

ভাইস চেয়ারম্যান পদে রফিকুল ইসলাম ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে শাহিদা মোশারফ বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। দু’জনই স্থানীয়ভাবে হুইপ নজরুলের ঘনিষ্ঠজন বলে পরিচিত।

চেয়ারম্যান প্রার্থী শাহজালালের অভিযোগ, এবার দলীয় প্রতীকে উপজেলা নির্বাচন না হলেও স্বপনকে প্রকাশ্যে সমর্থন দিচ্ছেন হুইপ ও সংসদ সদস্য নজরুল। স্থানীয়ভাবে প্রভাবশালী এই সংসদ সদস্য পছন্দের প্রার্থী স্বপনের পক্ষে ভোটারদের প্রভাবিত করতে নিয়মিত সভা-সমাবেশে উপস্থিত থাকছেন এবং হুমকির সুরে বক্তব্য দিচ্ছেন।

নির্বাচন কমিশনে দেওয়া অভিযোগে শাহজালাল বলেন, নজরুল নির্বাচনী আচরণবিধির তোয়াক্কা না করে চেয়ারম্যান পদে নিজেই একজন পছন্দের প্রার্থীর নাম ঘোষণা করে জনসাধারণকে হুকুম দিচ্ছেন তাঁর প্রার্থী স্বপনকে যে কোনো মূল্যে পাস করাতে হবে। হুইপ নজরুল ‘ক্ষমতা, অর্থকড়িসহ সকল প্রশাসন আমি দেখব’ বলে তাঁর ক্ষমতা ব্যবহার করে প্রকাশ্যে পছন্দের প্রার্থীর পক্ষে নির্বাচনী প্রচার করে যাচ্ছেন। তিনি তাঁর (শাহজালাল) কর্মী-সমর্থক, পোলিং এজেন্টদের বিরতিহীনভাবে হুমকি দিচ্ছেন, ভয়ভীতি দেখাচ্ছেন। তাঁকে অকথ্য ভাষায় গালাগাল করছেন। এতে তাঁর নির্বাচনী প্রচারে বাধার সৃষ্টি হচ্ছে। এ ছাড়া প্রার্থী স্বপনও তাঁর কর্মী-সমর্থক ও সম্ভাব্য পোলিং এজেন্টদের ভয়ভীতি প্রদর্শন, হুমকি দিয়ে যাচ্ছেন। এতে অবাধ ও নিরপেক্ষ নির্বাচন অনুষ্ঠানে বাধার সৃষ্টি হচ্ছে। অবাধ ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের স্বার্থে নির্বাচনী আচরণবিধি অনুযায়ী হুইপ নজরুল ও প্রার্থী স্বপনের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানান তিনি।

মঙ্গলবার কমিশনে আরেকটি অভিযোগ দেন শাহজালাল। কমিশনকে তিনি জানিয়েছেন, আড়াইহাজার উপজেলার অন্তত ২০টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সভাপতি হুইপ নজরুল। নিরপেক্ষতার শঙ্কা প্রকাশ করে তিনি এসব প্রতিষ্ঠানের কাউকে ভোট গ্রহণের দিন প্রিসাইডিং কর্মকর্তা বা পোলিং কর্মকর্তা হিসেবে দায়িত্ব না দিয়ে প্রয়োজনে পার্শ্ববর্তী উপজেলা থেকে কর্মকর্তাদের দায়িত্ব দেওয়ার দাবি জানিয়েছেন।
শাহজালাল মিয়া বলেন, প্রতিদিনই নজরুল বিভিন্ন এলাকায় স্বপনের পক্ষে নির্বাচনী সভা ও প্রচারে অংশ নিলেও নির্বাচন পরিচালনায় দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বা প্রশাসনের কেউ কোনো ব্যবস্থা নিচ্ছে না। গতকাল মঙ্গলবারও উপজেলার মারুয়াদি এলাকায় স্বপনের পক্ষে একটি সভা করেছেন নজরুল। 

অভিযোগ অস্বীকার করে জাতীয় সংসদের হুইপ ও আড়াইহাজারের সংসদ সদস্য নজরুল ইসলাম বাবু বলেন, শাহজালাল যে অভিযোগ করেছেন তা সম্পূর্ণ মিথ্যা।

ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের দ্বিতীয় ধাপে আগামী ২১ মে নারায়ণগঞ্জ জেলার রূপগঞ্জ, আড়াইহাজার ও সোনারগাঁয়ে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। তিনটি উপজেলা নির্বাচনেরই রিটার্নিং কর্মকর্তা হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) সাকিব আল রাব্বি। অভিযোগ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, আড়াইহাজার উপজেলার দোয়াত-কলম প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী নির্বাচন কমিশনার মো. আলমগীর বরাবর লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন বলে তিনি জেনেছেন। এ ক্ষেত্রে ব্যবস্থা নেবে কমিশন। তবে নির্বাচনী আচরণবিধি যাতে কেউ লঙ্ঘন না করে, সে ব্যাপারে তারা ব্যবস্থা নেবেন।

আরও পড়ুন

×