ঢাকা সোমবার, ২০ মে ২০২৪

‘কেউ কেউ মনে করেন, বাবার সম্পত্তি হয়ে গেছে সিলেট’

মেয়রকে উদ্দেশ করে আ’লীগ নেতার বক্তব্যে আলোড়ন

‘কেউ কেউ মনে করেন, বাবার সম্পত্তি হয়ে গেছে সিলেট’

ম্যাপ

 সিলেট ব্যুরো

প্রকাশ: ১৬ মে ২০২৪ | ০২:৫৭

সিলেট সিটি করপোরেশনের মেয়র আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরীকে একহাত নিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট নাসির উদ্দিন খান। এ নিয়ে দলে তোলপাড় চলছে। কেউ কেউ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে নানা মন্তব্য করছেন।

নাসির উদ্দিন সিটি মেয়রের নাম উল্লেখ না করলেও বক্তব্যের বিষয়বস্তু ও ধরন বিবেচনায় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মী বলছেন, মেয়রের উদ্দেশেই এ বক্তব্য দেওয়া হয়েছে। 

মঙ্গলবার রাতে জেলা পরিষদ মিলনায়তনে ওয়ান-ইলেভেনের সরকারের সময় সিলেটে আওয়ামী লীগের ৪০ নেতাকর্মীকে কারা নির্যাতনের ১৭ বছর উপলক্ষে আলোচনায় নাসির উদ্দিন কৌশলে মেয়রকে ইঙ্গিত করে বিভিন্ন মন্তব্য করেন। 

নাসির উদ্দিন নিজেদের জেল-জুলুমসহ নানা সংগ্রামের কথা উল্লেখ করে বলেন, ‘অনেকে বিদেশে বসে মাল কামিয়েছেন। অনেক আন্দোলন করেছি। আজ মনে হয়, আমরা পরগাছা। সুবিধাভোগীরা অনেকে জনপ্রতিনিধি হয়ে গেছেন। এখন কেউ কেউ মনে করেন, তাঁর  বাবার সম্পত্তি হয়ে গেছে সিলেট। আমরা টাকা খরচ করে অনেককে জনপ্রতিনিধি বানিয়েছি। সেটা ‍ভুললে চলবে না। আমার পাওয়ার আছে, আমার অমুক আছে-তমুক আছে, সেটা থাকবে না। জনগণ যদি না থাকে, সংগঠন যদি না থাকে কারও অস্তিত্ব থাকবে না। রাজনীতিতে দুঃসময় এলে তারা থাকবে না, আমাদের দেশে থাকতে হবে– আমাদের দ্বৈত নাগরিকত্ব নেই। আমি বললাম, তারা চলে যাবে।’

সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী শফিকুর রহমান চৌধুরী। সভাপতি ছিলেন নাসির উদ্দীন। জেলা আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক জগলু চৌধুরীর পরিচালনায় বিশেষ অতিথি ছিলেন মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক জাকির হোসেন, আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ, বাংলাদেশ অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশনের মহাসচিব ও সাবেক রাষ্ট্রদূত সৈয়দ শাহেদ রেজা।

এ বিষয়ে বক্তব্য জানতে মেয়র আনোয়ারুজ্জামান ও নাসির উদ্দিনের মোবাইল ফোনে একাধিকবার কল করা হলেও তারা রিসিভ করেননি।

যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আনোয়ারুজ্জামান গত বছর সিলেট সিটি নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন পেয়ে চমক দেখান। তিনি জয়লাভ করলেও তাঁকে মেনে নিতে পারেননি দলের একটি অংশের নেতাকর্মী। গত ২ মার্চ প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী শফিকুর রহমান চৌধুরীর সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে চেয়ার ছোড়াছুড়ি হয়। ওই দিন মেয়রসহ একজন এমপিকে বক্তব্য দিতে না দেওয়ায় অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটে।

আরও পড়ুন

×