লাগাতার সাইবার হামলার শিকার হচ্ছে অস্ট্রেলিয়া। দেশটির সরকারি ও বেসরকারি সংস্থাগুলোকে টার্গেট করে এ সাইবার হামলা চালানো হয়েছে। দেশটির প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন শুক্রবার এ কথা জানিয়েছেন। তার দাবি, রাষ্ট্রীয়ভাবে এই হামলা চালানো হয়েছে। যদিও তিনি কোনো দেশের নাম উল্লেখ করেননি। খবর বিবিসি ও সিএনএনের।

ক্যানবেরায় সংবাদ সম্মেলন করে প্রধানমন্ত্রী মরিসন বলেন, ‘অস্ট্রেলীয় প্রতিষ্ঠানগুলো রাষ্ট্রভিত্তিক সুসংঘবদ্ধ সাইবার হামলার শিকার হচ্ছে। এতে সব পর্যায়ের সরকার, শিল্পপ্রতিষ্ঠান, রাজনৈতিক সংগঠন, শিক্ষা, স্বাস্থ্য, জরুরিসেবাসহ বিভিন্ন খাতকে লক্ষ্যবস্তু বানানো হচ্ছে। এ অপচেষ্টা সম্প্রতি আরও বেড়েছে।’

এই হামলায় কোনও ক্ষতি হয়েছে কিনা সে ব্যাপারে বিস্তারিত জানাননি মরিসন। তবে তার দাবি, সাইবার হামলার ধরন থেকে বোঝা যাচ্ছে, এই ঘটনা নিশ্চিতভাবে ‘সফিসটিকেটেড স্টেট-বেসড সাইবার অ্যাক্টর’। তবে কোন দেশ এ আক্রমণ চালাচ্ছে, সে ব্যাপারে তিনি কিছু বলেননি। 

অস্ট্রেলিয়ার নাগরিকদের নির্দিষ্ট ঝুঁকি ও বারবার করা আক্রমণগুলো সম্পর্কে সতর্ক করতে হুট করেই করা এ সংবাদ সম্মেলনে স্কট মরিসন বলেন, দেশের বেশ কয়েকটি সংবেদনশীল সংস্থা এরই মধ্যে সাইবার অ্যাটাকের শিকার হয়েছে। কেবল মুষ্টিমেয় দেশের পক্ষেই এমন হামলা করা সম্ভব। কারা এই হামলার পিছনে রয়েছে তা তদন্ত করে দেখা হবে।

সংবাদ সম্মেলনে অস্ট্রেলিয়ার প্রতিরক্ষামন্ত্রী লিন্ডা রেইনল্ডস বলেন, এসব আক্রমণে বড় পরিসরে কোনো ব্যক্তিগত তথ্য লঙ্ঘন হয়নি। তিনি ব্যবসায়িক এবং অন্যান্য সংস্থাকে সর্বশেষ সফটওয়্যারের মাধ্যমে সব ধরনের ওয়েব ও ই-মেইল সার্ভার সম্পূর্ণ হালনাগাদ করে মাল্টি-ফ্যাক্টর অথেনটিকেশন (প্রমাণীকরণ) নিশ্চিত করার অনুরোধ জানিয়েছেন।

প্রসঙ্গত, চীন, ইরান, ইসরায়েল, উত্তর কোরিয়া, রাশিয়া, যুক্তরাষ্ট্র এবং ইউরোপের বেশ কয়েকটি দেশের সাইবার ওয়ারফেয়ার সক্ষমতা রয়েছে । তবে অস্ট্রেলিয়ায় কারা কাজটি করছে, তা নিশ্চিত নয়। 

এ ব্যাপারে অস্ট্রেলিয়ান স্ট্র্যাটেজিক পলিসি ইনস্টিটিউটের নির্বাহী পরিচালক পিটার জেনিংস বলেন, আমি ৯৫ শতাংশ নিশ্চিত এই সাইবার হামলা চীন চালাচ্ছে। তিনি বলেন, ‘রাশিয়ানরা এটা করতে পারে, উত্তর কোরিয়া পারে। তবে তাদের কারোরই এত বিপুল আগ্রহ নেই। অঙ্গরাজ্য ও আঞ্চলিক সরকার বা বিশ্ববিদ্যালয়ে আগ্রহ নেই ওদের। একমাত্র দেশ যার এত গভীরে যাওয়ার আগ্রহ এবং গোয়েন্দা ব্যবস্থা রয়েছে, সেটি হচ্ছে চীন।’

মন্তব্য করুন