গত সোমবার থেকে অস্ট্রেলিয়ার ভিক্টোরিয়া রাজ্যে নির্মাণ শ্রমিকরা কোভিড টিকা বিরোধী আন্দোলন করছে। রাজ্য সরকারের "নো ভ্যাক্স-নো জব" আদেশ জারির পর এই আন্দোলনে নামে নির্মাণ শ্রমিকরা। অর্থাৎ টিকা ছাড়া কাজ দেওয়া হবে না। এই শ্রমিকরা টিকা বিরোধী। তারা টিকা নিতে চান না। 

গত ১৭ সেপ্টেম্বর সরকারের পক্ষ থেকে বলা হয় ২৩ সেপ্টেম্বরের মধ্যে সকল নির্মাণ শ্রমিককে অন্তত একটি কোভিড-১৯ এর টিকা নিতে হবে। আর এতেই বাধে যত বিপত্তি। নির্মাণশ্রমিকদের একটি অংশ এই বাধ্যতামূলক টিকে নিতে অস্বীকৃতি জানায় এবং আন্দোলনে নামে।

গত ২০ সেপ্টেম্বর প্রথমে নির্মাণশ্রমিকদের এই অংশটি তাদের ইউনিয়ন অফিস ঘেরাও করে ভাঙচুর করে। মারামারিতে লিপ্ত হয়। একপর্যায়ে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। পরবর্তীতে গত মঙ্গলবার থেকে এই শ্রমিকরা রাজধানীর মহাসড়ক দখল করে বিক্ষোভ করে। এতে সৃষ্টি হয় যানজট।

তবে ইউনিয়ন নেতাদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, তারা এই আন্দোলনকে নিন্দা জানাচ্ছে। ইউনিয়ন নেতারা জানান, হাজার হাজার এই আন্দোলনকারীর খুব কম সংখ্যকই আসলে নির্মাণশ্রমিক, অধিকাংশই কট্টর ডানপন্থী টিকা বিরোধী। বিগত সপ্তাহগুলোতে "মার্চ ফর ফ্রিডম" নামে এই ডানপন্থীরা দফায় দফায় আন্দোলন করেছে ও লকডাউন ভঙ্গ করে মিছিল করেছে, পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে লিপ্ত হয়েছে। 

গত পাঁচদিন ধরে চলমান এই বিক্ষোভে শতাধিক বিক্ষোভকারীকে পুলিশ ও আইন প্রণয়নকরি সংস্থা আটক করে। 

বিক্ষোভকারীদের হামলার শিকার হওয়ার পর মেলবোর্নের  দুটি স্বাস্থ্য ক্লিনিক শুক্রবার বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। 

সহিংসতায় শত শত মানুষের জীবন যাপন ও ওয়েস্ট-গেট ব্রিজকে থমকে দেয়। রাজধানী ও এর পার্শ্ববর্তী এলাকার মহাসড়ক ও মূল সড়কগুলোতে যান চলাচল প্রায় বন্ধ হয়ে যায়। শহর দীর্ঘ যানজটে পড়ে। এক পর্যায়ে পুলিশ এই বিক্ষোভকারীদের নিয়ন্ত্রণে রাখতে রাবার বুলেট ও কাঁদানে গ্যাস ছোড়ে।