চিলির পোশাক কারখানায় আগুনে নিহত ৫

প্রকাশ: ২১ অক্টোবর ২০১৯     আপডেট: ২১ অক্টোবর ২০১৯      

অনলাইন ডেস্ক

চিলির রাজধানী সান্তিয়াগোতে সরকারবিরোধী বিক্ষোভের মধ্যে একটি পোশাক কারখানায় লুটেরাদের লাগানো আগুনে পুড়ে পাঁচ জন নিহত হয়েছেন।

স্থানীয় সময় রোববার এ ঘটনা ঘটে। বিবিসির খবরে বলা হয়, মেট্রোরেলের ভাড়া বৃদ্ধির প্রতিবাদে শুক্রবার স্থানীয় স্কুল ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা মেট্রোস্টেশন ভাংচুর ও পুলিশের গাড়িতে আগুন দেয়। পুলিশও পাল্টা লাঠি চার্জ ও টিয়ারগ্যাস নিক্ষেপ করে। এতে কার্যত অচল হয়ে পড়ে শহরটি। এরপর দেশটির সরকার জরুরি অবস্থা ঘোষণা করে।

শনিবার রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের পর বিক্ষোভকারীদের প্রতিবাদের মুখে বর্ধিত ভাড়া বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত বাতিল করে দেয় সরকার। রোববারও প্রতিবাদকারীরা বহু বাসে আগুন ধরিয়ে দেয়, মেট্রো স্টেশন ভাংচুর করে ও দাঙ্গা পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে জড়ায়।

চিলির যে অঞ্চলে এই অস্থিরতা দেখা দিয়েছে সেই শহর ল্যাটিন আমেরিকার সবচেয়ে ধনবান শহর হলেও অনেক ক্ষেত্রে বৈষম্য রয়েছে। ৬০ লাখ লোকের বসবাসের ওই শহরে জীবনযাত্রার মান দিন দিন ব্যয়বহুল হয়ে উঠছে। 

ব্যয়বহুল জীবনযাত্রা ও নানা বৈষম্যের কারণে সেখানকার মানুষ রোববারও বিক্ষোভ করতে থাকেন। বিক্ষোভকারীদের উপর সেনাবাহিনী এবং পুলিশ টিয়ার গ্যাস এবং জলকামান নিক্ষেপ করেন। গুরুত্বপূর্ণ শহরগুলোতে এখন পর্যন্ত কারফিউ জারি অব্যাহত রাখা হয়েছে। 

বিক্ষোভ মোকাবেলায় সরকারের নেওয়া পদক্ষেপকে ‘গণতন্ত্র রক্ষার স্বার্থ’ বলে সাফাই গেয়েছেন দেশটির রাষ্ট্রপতি সেবাস্তিয়ান পিনেরা।

১৯৯০ সালের পর এই প্রথম দেশটির রাস্তায় হাজার হাজার সৈন্য ও ট্যাঙ্ক নামানো হয়েছে। কয়েক দশকের মধ্যে দেশটি সবচেয়ে খারাপ অবস্থায় রয়েছে। জাতিতে জাতিতে বিভাজনে অস্থির হয়ে উঠছে দেশটির বর্তমান পরিস্থিতি।