স্টেডিয়ামে প্রবেশাধিকার পেলেন ইরানি নারীরা

প্রকাশ: ০৯ অক্টোবর ২০১৯      

অনলাইন ডেস্ক

ছবি: বিবিসি

ফুটবল খেলা দেখতে স্টেডিয়ামে প্রবেশাধিকার পেয়েছেন ইরানি নারীরা। দীর্ঘ চার দশক পর এমন সুযোগ পেলেন তারা। শুধু পুরুষরাই স্টেডিয়ামে খেলা দেখতে পারবেন- ইরানের এমন রক্ষণশীল নীতির বিরোধিতা করে ফিফা দেশটিকে বহিস্কারের হুমিক দেয়। এরপরই নারীদের জন্য স্টেডিয়াম খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্তের কথা জানায় তেহরান।

বৃহস্পতিবার ২০২২ বিশ্বকাপ ফুটবলের বাছাইপর্বের একটি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে তেহরানের আজাদি স্টেডিয়ামে। এই ম্যাচটি দেখার জন্য ইতিমধ্যে টিকিট সংগ্রহ করেছেন অনেক ইরানি নারী। খবর এএফপির।

ইরানে প্রায় ৪০ বছর ধরে ফুটবল ও অন্যান্য স্টেডিয়ামে নারীদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। দেশটির আলেমদের যুক্তি, নারীদের অবশ্যই পুরুষদের বেশি উপস্থিতি রয়েছে এমন পরিবেশ এবং স্বল্প পোশাক পরা পুরুষদের নজর থেকে দূরে থাকা উচিত। তবে বিশ্ব ফুটবলের পরিচালনা পরিষদ ফিফা গত মাসে ইরানকে কোনো ধরনের বিধিনিষেধ ছাড়াই টিকিটের চাহিদা অনুযায়ী নারীদের স্টেডিয়ামে প্রবেশের অনুমতি দিতে হবে বলে নির্দেশনা দেয়।

মূলত সাহার খোদায়ারি নামে এক নারী ফুটবল ভক্ত গত মাসে নিজের গায়ে আগুন ধরিয়ে দিয়ে মারা যাওয়ার পর ফিফা এ ঘোষণা দেয়। 'ব্লু গার্ল' হিসেবে পরিচিতি পাওয়া সাহার তার পছন্দের ক্লাবের একটি ম্যাচ দেখতে ছেলেদের পোশাক পরে স্টেডিয়ামে ঢোকেন। পরে ধরা পড়ে যান তিনি। কিন্তু জেলে যাওয়ার ভয়ে তিনি গায়ে আগুন ধরিয়ে দিয়ে মারা যান।

বৃহস্পতিবার বিশ্বকাপ বাছাই পর্বের ম্যাচে কম্বোডিয়ার বিপক্ষে তেহরানে মাঠে নামবে ইরান। নারীদের মধ্যে ম্যাচটি নিয়ে দারুণ আগ্রহ লক্ষ্য করা গেছে। দেশটির রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম জানায়, এই টিকিটের প্রথম ব্যাচ এক ঘণ্টার মধ্যে বিক্রি হয়ে গেছে। অতিরিক্ত আসনও খুব দ্রুত বিক্রি হয়ে গেছে। টিকিট পেতে নারীদের মধ্যে দারুণ আগ্রহ লক্ষ্য করা গেছে।

টিকিট পাওয়া নারীদের অন্যতম ক্রীড়া সাংবাদিক রাহা পুর্বাখশ। তিনি জানান, 'এত বছর ধরে ক্রীড়া সাংবাদিক হিসেবে কাজ করার পর এই প্রথম মাঠে বসে খেলা দেখতে পারব। এটা দারুণ ব্যাপার।'