প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীকে আধুনিকায়ন করা হচ্ছে। বর্তমান সরকার আনসারকে সব দিক দিয়ে আধুনিকায়নের পদক্ষেপ নিয়েছে। রেঞ্জ, জেলা, উপজেলা পর্যায়ে বাহিনীর জন্য আধুনিক ভবন নির্মাণের প্রক্রিয়া চলছে। অবকাঠামোসহ প্রতিটি ক্ষেত্রে আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর আধুনিকায়ন হচ্ছে। 

আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর ৪২তম জাতীয় সমাবেশে প্রধানমন্ত্রী এ কথা বলেন। গাজীপুরের সফিপুর আনসার ভিডিপি একাডেমিতে আয়োজিত বাংলাদেশ আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর এ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। বৃহস্পতিবার সকালে ভিডিও কনফারেন্সে গণভবন থেকে সমাবেশে যুক্ত ছিলেন তিনি। সমাবেশে ১৬২ জন আনসার সদস্যকে ‘সেবা ও সাহসিকতা পদক’ দেয়া হয়। 

প্রধানমন্ত্রী বলেন, জাতীয় গুরুত্বপূর্ণ বিভিন্ন বিষয়ে ভূমিকা রাখছে আনসার সদস্যরা। সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদমুক্ত দেশ গড়তে আনসার বাহিনী ভূমিকা রেখে যাচ্ছে। পাবনার রূপপুর পরমাণু বিদ্যুৎকেন্দ্র, কক্সবাজারের মাতারবাড়ী প্রকল্প, চট্টগ্রামের কর্ণফুলীতে বঙ্গবন্ধু টানেল নির্মাণসহ সরকারের মহাপ্রকল্পগুলো বাস্তবায়নে ভূমিকা রেখে যাচ্ছেন আনসার সদস্যরা।

সরকারপ্রধান বলেন, ১৯৯৬ থেকে ২০০০ সালের মধ্যে আনসার বাহিনীর চাকরি স্থায়ী করার পদক্ষেপ নেয়া হয়। এখন ছয় বছর চাকরি করার পর স্থায়ী করার ব্যবস্থা করা হচ্ছে। আনসার-ভিডিপি উন্নয়ন ব্যাংক থেকে যথাযথভাবে ঋণ দেয়া হয়। ক্ষুদ্র ও মাঝারি ধরনের ঋণ বিতরণ করা হয়।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, সরকার করোনাকালে আনসার-ভিডিপি ব্যাংকে ৫০০ কোটি টাকা বরাদ্দ দিয়েছে। এই ব্যাংক থেকে সবচেয়ে বেশি ঋণ দেয়া হয়েছে। ব্যাংকের নিজস্ব ভবন নেই। সেই ভবন যাতে নির্মাণ হয় সে পদক্ষেপও গ্রহণ করা হচ্ছে।