কয়েক মাস আগেও মানুষ এদেশ ওদেশ ঘুরে বেড়াত। ছুটে বেড়াত পৃথিবীর এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তে। কিন্তু করোনাভাইরাসের মহামারি সেসব কিছু থামিয়ে দিয়েছে। সাম্প্রতিক ইতিহাসে মানুষের চলাচল বন্ধ হয়ে যাওয়ার এমন নজিরবিহীন চিত্র আর দেখা যায়নি। এমন এক পরিস্থিতিতে প্রকাশিত হয়েছে সবচেয়ে শক্তিশালী পাসপোর্টের সূচক। এই সূচকে জাপানের অবস্থান সবার ওপরে। বাংলাদেশের অবস্থান ১০১ নম্বরে।

দ্য হেনলে পাসপোর্ট ইনডেক্স পাসপোর্টের সূচক প্রকাশ করে। এবার করোনাভাইরাসের মহামারির মধ্যে গতকাল মঙ্গলবার এ সূচক প্রকাশিত হলো বলে জানিয়েছে সিএনএন। 

কোন দেশ কতগুলো দেশে ভিসামুক্ত বা আন অ্যারাইভাল ভিসার সুবিধা পায় তা বিবেচনায় নিয়ে তৈরি করা হয় শক্তিশালী পাসপোর্টের সূচক। তবে দেশ বিদেশ ছুটে বেড়ানোর সে পরিস্থিতি এখন আর নেই। বিশ্বের ৯৩ শতাংশ মানুষ এখন ঘরবন্দি হয়ে পড়েছেন করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার কারণে। 

হেনলে পার্সপোর্ট ইনডেক্সের প্রতিষ্ঠাতা ক্রিশ্চিয়ান কালিন আশা করেন, এই মহামারি খুব শিগগির মানুষ জয় করবে। তখন আবার মানুষ ছুটে বেড়াবে পৃথিবীর এক প্রান্ত থেকে আরেক প্রান্তে।

সবচেয়ে শক্তিশালী পাসপোর্টের তালিকায় শীর্ষে অবস্থানে থাকা জাপান ১৯১টি দেশ ও অঞ্চলে ভিসামুক্ত প্রবেশের সুযোগ পায়। দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে সিঙ্গাপুর। যৌথভাবে তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে দক্ষিণ কোরিয়া ও জার্মানি। চতুর্থ অবস্থানে রয়েছে করোনাভাইরাসে বিপর্যস্ত ইতালি, স্পেন, ফিনল্যান্ড ও লুক্সেমবার্গ। পঞ্চম স্থানে রয়েছে ডেনমার্ক ও অস্ট্রিয়া।

করোনাভাইরাসে বিপর্যস্ত অন্য দু’টি দেশে যুক্তরাষ্ট্র ও ব্রিটেন রয়েছে সাত নম্বরে।

তালিকায় বাংলাদেশের পাসপোর্টের অবস্থান ইরানের সঙ্গে যৌথভাবে ১০১ নম্বরে। ৪১টি দেশে ভিসামুক্ত প্রবেশের সুবিধা পায় বাংলাদেশ। প্রতিবেশি দেশ ভারতের পাসপোর্টেও অবস্থান ৮৫ নম্বরে। দেশটি ৫৮টি দেশে ভিসামুক্ত সুবিধা পায়। আরেক প্রতিবেশি দেশ পাকিস্তানের অবস্থান ১০৬ নম্বরে। দেশটির পার্সপোর্টধারীরা ৩২টি দেশে ভিসামুক্ত প্রবেশের সুবিধা পান।