জামায়াতের নতুন আমির ডা. শফিকুর

প্রকাশ: ১২ নভেম্বর ২০১৯      

সমকাল প্রতিবেদক

ফাইল ছবি

জামায়াতে ইসলামীর আমির নির্বাচিত হয়েছেন ডা. শফিকুর রহমান।

গত ১৭ অক্টোবর থেকে ১০ নভেম্বর পর্যন্ত আমির নির্বাচনের ভোটগ্রহণ করা হয়। দলের সর্বোচ্চ সংখ্যক রোকনের (সদস্য) ভোট পেয়েছেন শফিকুর রহমান। মঙ্গলবার তাকে জয়ী ঘোষণা করে জামায়াতের কেন্দ্রীয় নির্বাচন কমিশন। এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছে দলটি।

গোলাম আযম, মতিউর রহমান নিজামী এবং মকবুল আহমাদের পর জামায়াতের চতুর্থ আমির হলেন শফিকুর রহমান। তিনি আমির পদে শপথ নেওয়ার পর দলের মজলিসে শূরার পরামর্শে সেক্রেটারি জেনারেল পদে নিয়োগ দেওয়া হবে।

জামায়াত সূত্রের খবর- দলটির সেক্রেটারি জেনারেল হতে পারেন রফিকুল ইসলাম খান। তিনি এর আগে ভারপ্রাপ্ত সেক্রেটারি জেনারেলের দায়িত্ব পালন করেছেন।

২০১০ সালে মানবতাবিরোধী অপরাধে নিজামীকে গ্রেপ্তারের পর ওই বছরের ৩০ জুন জামায়াতের ভারপ্রাপ্ত আমির হন মকবুল আহমাদ। যুদ্ধাপরাধের দায়ে নিজামীর মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের পর ২০১৬ সালের ১৬ অক্টোবর আমির নির্বাচিত হন তিনি। গত সেপ্টেম্বরে সক্রিয় রাজনীতি থেকে অবসরের ইচ্ছার কথা জানিয়ে তাকে আর আমির পদে বিবেচনা না করতে অনুরোধ জানান।

গত মাসে জামায়াতের মজলিসে শূরা দলের আমির নির্বাচন করতে প্যানেল গঠন করে। সেখানে শফিকুর রহমান ছাড়া জামায়াতের দুই নায়েবে আমির মুজিবুর রহমান ও মিয়া গোলাম পরওয়ারেরও নাম ছিল। দলটির ৪৫ হাজার রোকনের বেশিরভাগ শফিকুর রহমানকে বেছে নেন। তবে তিনি কত ভোট পেয়েছেন তা জানানো হয়নি।

জামায়াতের গঠনতন্ত্র অনুযায়ী, আমির নির্বাচনের পর দলের মজলিসে শূরা নির্বাচিত হবে। গঠন করা হবে নতুন কেন্দ্রীয় কর্মপরিষদ এবং সর্বোচ্চ নীতিনির্ধারণী ফোরাম নির্বাহী পরিষদ।

শফিকুর রহমান ২০১৬ সালে জামায়াতের সেক্রেটারি জেনারেল মনোনীত হন। তিনি ৩০ ডিসেম্বরের নির্বাচনে বিএনপির মনোনয়নে ঢাকা-১৫ আসন থেকে অংশ নিয়ে হেরে যান। তার দায়িত্ব নেওয়ার মাধ্যমে মুক্তিযুদ্ধ-পরবর্তী প্রজন্মের হাতে জামায়াতের নেতৃত্ব যাচ্ছে। ১৯৫৮ সালে জন্ম নেওয়া শফিকুর রহমান ১৯৮৫ সালে জামায়াতে যোগ দেন। তিনি নতুন নামে দল গঠনে জামায়াত যে কমিটি করেছে তার নেতৃত্বেও রয়েছেন।