ঢাকা সোমবার, ২০ মে ২০২৪

প্রামাণ্যচিত্র

রোহিঙ্গা জীবনের যন্ত্রণার আখ্যান

রোহিঙ্গা জীবনের যন্ত্রণার আখ্যান

চট্টগ্রামে মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর আয়োজিত তিন দিনের প্রামাণ্যচিত্র উৎসবের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন সমাজবিজ্ঞানী ড. অনুপম সেন -সমকাল

আহমেদ কুতুব, চট্টগ্রাম

প্রকাশ: ১৩ অক্টোবর ২০২২ | ১২:০০ | আপডেট: ১৩ অক্টোবর ২০২২ | ১৪:০৩

কক্সবাজারের মধুরচোরা বিশ্বের সবচেয়ে বড় শরণার্থী শিবির। এখানে বাস করেন লাখ লাখ রোহিঙ্গা শরণার্থী। এখানে অস্তিত্ব রক্ষার সংগ্রামের মধ্যেও আশার রশ্মি প্রজ্বলিত করছেন কেউ কেউ। তাঁদের একজন সংগীতজ্ঞ মোহাম্মদ আহমেদ হোসেন।
২০১৭ সালে মিয়ানমারের সামরিক বাহিনীর নির্যাতন, হুমকি এবং গণহত্যার কারণে লাখ লাখ রোহিঙ্গা এখানে আশ্রয় নিয়েছেন। আহমেদ হোসেনও তখন এ দেশে চলে আসেন। 'ম্যান্ডোলিন ম্যান'খ্যাত এই যুবক আবেগপ্রবণ সংগীতশিল্পী। তিনি নিজ গোষ্ঠীর মানুষের দৈনন্দিন বাস্তবতাকে সংযোজন করে গান রচনা করে ম্যান্ডোলিনের কণ্ঠের মাধ্যমে প্রকাশ করেন।

রোহিঙ্গা মুসলিম সম্প্রদায়ের মধ্যে গানচর্চা কার্যত নিষিদ্ধ। আহমেদ হোসেন এ নিয়ম অস্বীকার করেছেন এবং ভালোবাসা, মানবতা এবং হারানো স্বদেশের জন্য সম্প্রদায়ের আকাঙ্ক্ষা ছড়িয়ে দেওয়ার জন্য গানের মাধ্যমে তাঁর যাত্রা অব্যাহত রেখেছেন। তাঁর সংগীত জনপ্রিয় হয়ে ওঠায় তিনি শিবিরের বাইরে কনসার্টেও অংশগ্রহণ করছেন। তিনি লাখ লাখ রোহিঙ্গার একজন, যারা তাঁদের জীবন এবং ভবিষ্যৎ নিয়ে অনিশ্চয়তায় ভুগছেন।

রফিকুল আনোয়ার রাসেল পরিচালিত ও মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর প্রযোজিত ৫৮ মিনিটের 'এ ম্যান্ডোলিন ইন এক্সাইল' প্রামাণ্যচিত্রে এভাবেই ফুটে ওঠে রাষ্ট্রহীন রোহিঙ্গাদের করুণ জীবন যন্ত্রণার আখ্যান।

গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে চট্টগ্রাম থিয়েটার ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে প্রদর্শিত হয়েছে এ প্রামাণ্যচিত্রটি। এ নগরে প্রথমবারের মতো মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের আয়োজনে শুরু হয়েছে 'লিবারেশন ডকফেস্ট চট্টগ্রাম-২০২২'। তিন দিনব্যাপী চলচ্চিত্র উৎসবে এ মুক্তিযুদ্ধ ও মানবাধিকার বিষয়ক দেশ ও বিদেশের ২২টি প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শিত হবে।

এর মধ্যে অন্যতম হলো- ফরিদ আহমেদ পরিচালিত 'ট্রু ফলস অ্যান্ড অ্যা রেভ্যুলিউশন (বাংলাদেশ)', রোস্টার কোরেলা পরিচালিত 'রুম উইদাউট অ্যা ভিউ (অস্ট্রিয়া), শেখ আল মামুন পরিচালিত 'হোয়াই নট (কোরিয়া/বাংলাদেশ), সুমন দেলোয়ার পরিচালিত 'জল গেরিলা (বাংলাদেশ), দিলারা বেগম জলি পরিচালিত 'জঠরনীলা (বাংলাদেশ)', আসমা বীথি পরিচালিত 'গিত্তাল মি আচ্ছিয়া (বাংলাদেশ)', লেবাননের মাহদি ফ্লিফেলের 'থ্রি লজিক্যাল এক্সিটস', বাংলাদেশের ফাখরুল আরেফিন খানের 'আলবদর', লেবাননের 'পোস্টপন্ড', ভারতের আমির আমির মাইবানের 'হাইওয়ে অব লাইফ', ফয়সাল স্বপ্নীল পরিচালিত 'হিরো ইজ নো ওয়ান', ইয়াছমিন কবির পরিচালিত 'রোজি', ফজলে রাব্বী পরিচালিত 'ফ্ল্যাইং চাইল্ড', রাসেল রানা দোহা পরিচালিত 'হাউজার হোদা', ইন্দোনেশিয়ার কার্তিক পরিচালিত 'কোনটা সিয়া' ১৫ অক্টোবর পর্যন্ত থিয়েটার হলে দেখতে পাবেন দর্শকরা। সবার জন্য প্রদর্শনী উন্মুক্ত।

বিকেলে প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন শিক্ষাবিদ ড. অনুপম সেন। আরও উপস্থিত ছিলেন লিবারেশন ডকফেস্ট চট্টগ্রামের ফেস্টিভ্যাল প্রোগ্রামার শরিফুল ইসলাম শাওন, ফেস্টিভ্যাল ডিরেক্টর তারেক আহমেদ, প্রামাণ্যচিত্র নির্মাতা দিলারা বেগম জলি, থিয়েটার ইনস্টিটিউট চট্টগ্রামের পরিচালক আহমেদ ইকবাল হায়দার এবং মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের ট্রাস্টি ও গবেষক মফিদুল হক। অনুপম সেন বলেন, মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর লিবারেশন ডকফেস্ট পুরোনো প্রজন্মের সঙ্গে নতুন প্রজন্মের সেতুবন্ধন। এর মাধ্যমে দেশে সুস্থ সংস্কৃতির চর্চার বিকাশ হবে। বহু চলচ্চিত্র নির্মাতা তৈরি হবে।

এর আগে সকালে 'এক্সপোজিশন অব ইয়াং ফিল্ম ট্যালেন্ট-২০২২ চট্টগ্রাম'-এর কর্মশালা উদ্বোধন করা হয়। চট্টগ্রাম থিয়েটার ইনস্টিটিউটে এ ফিল্ম প্রদর্শনী ও কর্মশালা শেষ হবে ১৫ অক্টোবর। তরুণ নির্মাতাদের প্রামাণ্যচিত্র নির্মাণে উৎসাহ প্রদান ও দক্ষ করার উদ্দশ্যে কর্মশালাটি শুরু হয়েছে। কর্মশালায় ১৮ জন তরুণ চলচ্চিত্র নির্মাতা অংশ নিয়েছেন।

আরও পড়ুন

×