সাভারে চাঞ্চল্যকর স্কুলছাত্রী নীলা রায় হত্যার ঘটনায় অভিযুক্ত কিশোর গ্যাং সদস্য মিজানুর রহমানের এক সহযোগীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার রাত আড়াইটার দিকে মানিকগঞ্জের আরিচাঘাট এলাকা থেকে ফেরী পারপারের সময় তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। হত্যাকান্ডের সময় সে ঘটনাস্থলে উপস্থিত ছিলো বলে জানিয়েছে পুলিশ।

বুধবার দুপুরে তাকে সাত দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে পাঠানো হলে দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন বিচারক।

গ্রেপ্তার সেলিম পালোয়ান (২৮) বাগেরহাটের হাফেজ পালোয়ানের ছেলে। সে সাভারের ব্যাংক কলোনী এলাকায় পরিবারের সাথে বাস করত। নীলাকে হত্যার আগে মোবাইল ফোনে মিজানের সঙ্গে সেলিম পালোয়ানের অনেকবার কথা হয়েছে। তবে এখনো পলাতক রয়েছে মূল আসামি মিজানুর রহমান।

সাভার মডেল থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) সাইফুল ইসলাম জানান, প্রধান অভিযুক্ত মিজানুরের সহযোগী সেলিমকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। সে হত্যাকারী মিজানুর রহমানের ঘনিষ্ট সহযোগী। সেলিমকে সাত দিনের রিমান্ড চেয়ে বুধবার দুপুরে আদালতে পাঠানো হলে দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর হয়।

স্থানীয়রা জানায়, ব্যাংক কলোনী মহল্লার মাদকের স্পটগুলো নিয়ন্ত্রণ করে সাকিব ও শাকিল বাহিনী। তাদের সহযোগী ছিল সাগর, সুজন, পারভেজ, হানিফ, জয়, রাব্বি, ও যাবেরসহ অর্ধশত বখাটে যুবক। এসব স্পটে ইয়াবা, হেরোইনসহ সব ধরনের মাদক বিক্রী হয়।

প্রসঙ্গত, গত রোববার রাতে নীলা রায়কে তুলে নিয়ে নির্যাতন শেষে উপর্যুপরি ছুরিকাঘাতে হত্যা করে মিজান। এঘটনায় ২১ সেপ্টেম্বর নিহতের বাবা নারায়ণ রায় মিজান, তার বাবা আব্দুর রহমান, মা নাজমুন নাহার সিদ্দিকাসহ অজ্ঞাতনামাদের বিরল্ফম্নদ্ধে একটি মামলা করেন।

মন্তব্য করুন