ঢাকা বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

ফসলি জমি কেটে ইউপি সদস্যের রাস্তা

ইউএনওর নির্দেশ অমান্য

ফসলি জমি কেটে ইউপি সদস্যের রাস্তা

ধামরাইয়ের চরসুঙ্গর এলাকায় রাস্তা নির্মাণ করতে ফসলি জমির মাটি কাটা হয়েছে - সমকাল

ধামরাই (ঢাকা) প্রতিনিধি

প্রকাশ: ১৭ অক্টোবর ২০২৩ | ১৮:০০ | আপডেট: ১৮ অক্টোবর ২০২৩ | ০৭:৪৭

ঢাকার ধামরাইয়ের চরসুঙ্গর এলাকায় ইউএনওর নির্দেশ অমান্য করে কৃষকদের তিন ফসলি জমির মাটি কেটে রাস্তা নির্মাণের অভিযোগ উঠেছে এক ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে।

গতকাল মঙ্গলবার ওই ইউপি সদস্যকে সাত কার্যদিবসের মধ্যে এ বিষয়ে জবাব দেওয়ার জন্য নোটিশ দিয়েছেন ইউএনও। এ নিয়ে এলাকায় দুই পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে। জানা গেছে, ধামরাই উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিস থেকে গ্রামীণ অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় উপজেলার রোয়াইল ইউনিয়নের চরসুঙ্গর এলাকায় মাটির রাস্তা নির্মাণের জন্য ৩ লাখ টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়। প্রকল্পটির সভাপতি হিসেবে ওই ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য আবদুর রহিম মিয়ার বাস্তবায়ন করার কথা। সম্প্রতি ইউপি সদস্য চরসুঙ্গর এলাকার তিন ফসলি জমির ওপর দিয়ে রাস্তা নির্মাণ করার ঘোষণা দেন। এরপর গত ১ অক্টোবর স্থানীয় রোয়াইল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান কাজীম উদ্দিন, স্থানীয় বাসিন্দা আবদুস সালাম, আব্দুল মালেক, মাসুদুর রশিদ পবনসহ কয়েক ব্যক্তি ফসলি জমি নষ্ট করে রাস্তা নির্মাণের বিষয়ে ইউএনওর কাছে লিখিত অভিযোগ দেন। অভিযোগের খবর পেয়ে ২ অক্টোবর রাতে ইউপি সদস্য রহিম ভেকু মেশিন দিয়ে স্থানীয় খড়ারচর, বহুতকুল ও চরসুঙ্গর এলাকার আবদুর রউফ মোল্লা, আবদুল্লাহ মোল্লা, হাসান আলী, সালাম, মালেক, মাসুদুর রশিদ পবন, খায়রুন্নাহারসহ ১৫-২০ জন কৃষকের তিন ফসলি জমির মাটি কেটে ওই ফসলি জমির ওপর দিয়েই প্রায় ৩০০ মিটার রাস্তা নির্মাণ করেন। এ সময় ওইসব জমির পেঁপে, বেগুনসহ নানা সবজি নষ্ট করে ফেলা হয়েছে। এরপর গত ৫ অক্টোবর ধামরাইয়ের ইউএনও হোসাইন মোহাম্মদ হাই জকী, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা একেএম মনিরুল হক ঘটনাস্থল পরিদর্শনে যান। এ সময় রাস্তা নির্মাণের প্রতিবাদ ও ইউএনওর কাছে লিখিত অভিযোগ করায় ইউপি সদস্যের পক্ষের লোকজন স্থানীয় জমির মালিক হাসান আলী ও আবদুর রউফ মোল্লার ওপর হামলা করে। ইউএনও ঘটনাস্থলেই ইউপি সদস্যকে ফসলি জমি নষ্ট করে রাস্তা নির্মাণ করতে নিষেধ করেন। কিন্তু তাঁর নির্দেশ অমান্য করে গত রোববার রাতে আবারও ফসলি জমির ওপর দিয়ে প্রায় ২০০ মিটার রাস্তা নির্মাণ করেন। বিষয়টি সোমবার স্থানীয় কৃষকরা ইউএনওকে জানান। গতকাল মঙ্গলবার ইউএনও ইউপি সদস্যকে সাত কার্যদিবসের মধ্যে এ বিষয়ে জবাব দেওয়ার জন্য নোটিশ দিয়েছেন। মাসুদুর রশিদ পবনসহ ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকরা জানান, এক-দু’জন ব্যক্তির স্বার্থ হাসিলের জন্য ইউপি সদস্য তাদের তিন ফসলি জমি নষ্ট করে এ রাস্তা নির্মাণ করেছেন। ইউএনওর কাছে অভিযোগ করায় ইউপি সদস্য রহিম তাদের হত্যাসহ বিভিন্ন হুমকি দিচ্ছেন। এতে তারা ভীষণ আতঙ্কে রয়েছেন। ধামরাই উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা একেএম মনিরুল হক বলেন, কৃষকের ক্ষতি করে রাস্তা নির্মাণ করা যাবে না। ইউপি সদস্য আবদুর রহিম মিয়া বলেন, ফসলি জমির ওপর দিয়ে রাস্তা নির্মাণের বিপক্ষে হাতেগোনা কয়েকজন। অন্য সবাই রাস্তা চায়। ইউএনও কারণ দর্শানোর নোটিশ দিয়েছেন, জবাব দেবেন– এ কথা বলে তিনি ফোন বন্ধ করে দেন। ইউএনও হোসাইন মোহাম্মদ হাই জকী বলেন, ইউপি সদস্য রহিম মিয়া অসদাচরণ ও ক্ষমতার অপব্যবহার করে রাতের অন্ধকারে মাটি কেটে কৃষকের ফসলাদির ক্ষতি করেছেন। এটি শাস্তিযোগ্য অপরাধ। কারণ দর্শানোর সঠিক জবাব না পেলে তাঁর বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আরও পড়ুন

×