ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

মায়ের কোলে ফিরল সেই ওহি

মায়ের কোলে ফিরল সেই ওহি

মা মরিয়মের কোলে ছোট্ট অহি। ছবি: সমকাল

কমলনগর (লক্ষ্মীপুর) প্রতিনিধি

প্রকাশ: ১২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ | ১৭:৪৫ | আপডেট: ১২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ | ১৭:৪৬

লক্ষ্মীপুরের কমলনগরে একটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে চুরি যাওয়া ৯ মাসের শিশু মালিহা ইসলাম ওহি ফিরেছে মায়ের কোলে। রোববার রাতে উপজেলার হাজিরহাট উপকূল সরকারি কলেজের দক্ষিণের একটি রাস্তার পাশে পাওয়া যায় তাকে। কিছুক্ষণ পরই পুলিশ ওহিকে উদ্ধার করে মা মরিয়ম বেগমের কোলে তুলে দেয়।

মালিহা ইসলাম অহি কমলনগর উপজেলা সীমান্তের লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার তেওয়ারীগঞ্জ ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের চরউভূতি এলাকার সংযুক্ত আরব আমিরাত প্রবাসী মো. সেলিম ও মরিয়ম বেগম দম্পতির সন্তান। এ দম্পতির বড় মেয়ে সাবিহা ইসলাম মিহি পড়ে তোরাবগঞ্জ অগ্রণী স্কুল অ্যান্ড কলেজে নার্সারিতে।

মরিয়ম বেগম একই বিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষক। তিনি বলেন, বৃহস্পতিবার সেখানে বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠান ছিল। মিহি ‘যেমন খুশি তেমন সাজো’ অনুষ্ঠানে অংশ নেয়। ওহিকেও সঙ্গে নিয়ে সেখানে যান। মিহিকে সাজানোর জন্য চুলের ক্লিপ ও বেল্ট কিনতে পাশের বাজারে গিয়েছিলেন তিনি। এ সময় মরিয়মের ফুপাতো বোন ও একই প্রতিষ্ঠানের ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রী মায়া জোর করে ওহিকে রেখে দেয়। বাজার থেকে ফিরে মায়ার কাছে ওহিকে পাননি মরিয়ম। এ সময় মায়া তাঁকে জানায়, এক নারী তার কোল থেকে ওহিকে নিয়েছে। কিন্তু ওই নারীকে আর খুঁজে পাচ্ছে না। বিদ্যালয়ের ক্লোজ সার্কিট (সিসি) ক্যামেরায় দেখতে পায়, মাথায় লাল হিজাব, মুখে মাস্ক ও কালো বোরকা পরা এক নারী শিশুটিকে কোলে নিয়ে বিদ্যালয় থেকে বের হয়ে যাচ্ছে। 

পুলিশ জানায়, রোববার রাত আনুমানিক সাড়ে ১২টার দিকে কমলনগর থানার কাছাকাছি হাজিরহাট উপকূল সরকারি কলেজের পেছনে মাটির রাস্তা দিয়ে বাড়ি ফিরছিলেন স্থানীয় গ্রাম্য চিকিৎসক মো. ইউছুফ। তিনি রাস্তার পাশে একটি পুরোনো কম্বলে পেঁচানো খালি গায়ের শিশুকে দেখতে পেয়ে চিৎকার দেন। আশপাশের মানুষ শিশুটিকে কোলে নেয়। 

কমলনগর থানার ওসি মো. তহিদুল ইসলাম বলেন, এলাকাবাসী শিশুটিকে জামা ও কম্বলে পেঁচিয়ে থানায় সংবাদ দেয়। পরিচয় নিশ্চিত হয়ে ওহিকে মায়ের কোলে তুলে দিয়েছেন। তবে এ ঘটনায় জড়িত নারীকে আটক করা সম্ভব হয়নি। তদন্ত চলছে। 

ওহির মা মরিয়ম বেগম বলেন, রোববার রাত ১২টার কিছুক্ষণ আগে থানায় ছিলেন। সেখান থেকে বাড়ি ফেরার কিছুক্ষণ পরই তাঁর কাছে কল আসে। থানায় গিয়ে মেয়েকে দেখতে পান। পরে তাঁর কোলে ওহিকে তুলে দেয় পুলিশ। তিনি বলেন, ‘চার দিন পর আমার মেয়ে আমার কোলে ফিরেছে। আমার বুকটা ভরে গেছে।’

এ সময় পুলিশ, র‌্যাব, সাংবাদিকসহ সর্বস্তরের মানুষের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। তবে দাবি করেন চুরিতে জড়িত নারীকে যেন আইনের আওতায় আনা হয়।

আরও পড়ুন

×