ঢাকা রবিবার, ১৯ মে ২০২৪

ধামরাইয়ে হেলে পড়ল চার তলা ভবন, পরিত্যক্ত ঘোষণা

ধামরাইয়ে হেলে পড়ল চার তলা ভবন, পরিত্যক্ত ঘোষণা

ধামরাই পৌরসভার ধানসিড়ি আবাসন প্রকল্প এলাকায় একটি চার তলা ভবন শনিবার বিকেলে পাশের সাত তলা ভবনের গায়ে হেলে পড়েছে - সমকাল

ধামরাই (ঢাকা) প্রতিনিধি

প্রকাশ: ১১ মে ২০২৪ | ২২:৫৪ | আপডেট: ১১ মে ২০২৪ | ২২:৫৪

ঢাকার ধামরাই পৌরসভার ধানসিড়ি আবাসন প্রকল্প এলাকায় অনুমোদনহীন চার তলা একটি ভবন পাশের সাত তলা ভবনের গায়ে হেলে পড়েছে। তবে দুটি ভবনের বাসিন্দাদের নিরাপদে সরিয়ে নিয়েছেন ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা।

শনিবার বিকেল ৫টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে ধামরাই পৌরসভার মেয়র ও উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে সাময়িকভাবে ভবন দুটি পরিত্যক্ত ঘোষণা করেন।

জানা গেছে, ধামরাই পৌরসভার ধানসিড়ি আবাসন প্রকল্প এলাকায় দুই বছর আগে দন্তচিকিৎসক জিয়াউর রহমান সিকদার ৩ শতাংশ জমির ওপর চার তলা ভবন নির্মাণ করে আবাসিক হিসেবে ভাড়া দেন। তাঁর ভবন ঘেঁষেই শিরীন মমতাজ নামে এক নারী সাত তলা ভবন নির্মাণ করেছেন। চার তলা ভবনটি শনিবার বিকেলে পূর্ব পাশের সাত তলা ভবনটির গায়ে হেলে পড়ে। এর পরই দুটি ভবনের বাসিন্দাদের মধ্যে আতঙ্ক সৃষ্টি হয়। খবর পেয়ে ধামরাই ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ঘটনাস্থলে গিয়ে দুটি ভবনের বাসিন্দাদের নিরাপদে সরিয়ে দেন।

ধামরাই ফায়ার সার্ভিস স্টেশন অফিসার সোহেল রানা জানান, ভবনের বাসিন্দাদের জীবনের নিরাপত্তার কথা চিন্তা করে দুটি ভবনের সব বাসিন্দাকে সরিয়ে দিয়ে নিরাপত্তাবেষ্টনী তৈরি করা হয়েছে। তবে কী কারণে ভবনটি হেলে পড়েছে, তা তাৎক্ষণিকভাবে জানা যায়নি।

এলাকাবাসী জানান, ধানসিড়ি আবাসন প্রকল্প এলাকাটি ৮-৯ বছর আগেও বিল ছিল। সেখানে ভরাট করে আবাসন প্রকল্প করা হয়েছে।

ধামরাই পৌরসভার মেয়র গোলাম কবির বলেন, চার তলা ভবন হেলে পড়ার খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে ভবনটি সাময়িকভাবে পরিত্যক্ত ঘোষণা করা হয়েছে। ভবনটির অনুমোদনও নেই। পাশের যে সাত তলা ভবনে এটি হেলে পড়েছে, সেটিরও ছয় তলা পর্যন্ত অনুমোদন আছে। বিষয়টি আরও তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

তবে ভবন মালিক দন্তচিকিৎসক জিয়াউর রহমান সিকদার সাংবাদিকদের বলেন, তাঁর চার তলা ভবনটির অনুমোদন আছে। তবে কী কারণে এটি হেলে পড়েছে, তা তিনি বুঝতে পারছেন না।

সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন ধামরাই উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) প্রশান্ত বৈদ্য। তিনি সাংবাদিকদের বলেন, এ বিষয়ে পৌর কর্তৃপক্ষ ব্যবস্থা নেবে।

আরও পড়ুন

×