কওমি ওলামায়ে কেরামকে বিভক্ত করতে এবং সরকারবিরোধী এজেন্ডা বাস্তবায়নের জন্য হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের সিনিয়র নায়েবে আমির ও বেফাক সহসভাপতির পদ থেকে মাওলানা শাহ মুহিবুল্লাহ বাবুনগরী সম্প্রতি পদত্যাগ করেছেন বলে দাবি করেছে কওমি সনদ বাস্তবায়ন পরিষদ বাংলাদেশ। 

এর নেপথ্যে জামায়াত ও হরকাতুল জিহাদ ভূমিকা পালন করেছে বলেও দাবি করেছে সংগঠনটি। 

সোমবার সংগঠনের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব দাবি করা হয়।

এতে বলা হয়, বাবুনগরীর পদত্যাগ নিয়ে কওমি অঙ্গনে তোলপাড় চলছে। কওমি মাদ্রাসার দাওরা সনদকে মাস্টার্সের মান দেওয়াকে কেন্দ্র করে কওমি মাদ্রাসাভিত্তিক দল ও সংগঠনে বিভক্তি দেখা দিয়েছে। এ বিভক্তির মূলে রয়েছে জামায়াত ও হরকাতুল জিহাদ। কওমি ছাত্র-শিক্ষকদের মাধ্যমে সরকারবিরোধী আন্দোলন চাঙ্গা করতে এ দুটি শক্তি বর্ষীয়ান আলেমকে কৌশলে ব্যবহার করার পরিকল্পনা নিয়েছে। আগামী নির্বাচনে আওয়ামী লীগ যাতে কওমি ভোটে ভাগ বসাতে না পারে সে জন্যই তাদের এই পরিকল্পনা।

বিবৃতিদাতাদের মধ্যে রয়েছেন- মনিরুল ইসলাম হোসানী, আবদুস সালাম, আবদুল মালেক আফেন্দি, আতাউল্লাহ, আজিজুল হক, ফখরুল ইসলাম, শহিদ উদ্দিন, মাহাবুবুর রহমান, আহমদুল হক, আবু ওয়াক্কাশ, আলি উল্যাহ আজাহার।

বিষয় : হেফাজতে ইসলাম মাওলানা শাহ মুহিবুল্লাহ বাবুনগরী

মন্তব্য করুন