সম্পর্কে ঈর্ষা থাকবে, এটাই স্বাভাবিক। বিশেষ করে সঙ্গীর জন্য তীব্র অনুভূতি থাকলে যে কোন না সময় এটা হতে পারে। কখনও কখনও সম্পর্কে ঈর্ষা দুজনকে আরও কাছাকাছি নিয়ে আসে। কিন্তু এটা যদি নিত্তনৈমত্তিক ব্যাপার এবং ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র কারণে হয় তাহলে তা ভাবনার বিষয় বৈকি।

সাধারণত ভয় থেকেই ঈর্ষা সৃষ্টি হয়। যখন একজন মানুষের ওপর আরেকজনের নির্ভরতা অনেক বেড়ে যায়,তখন তাকে হারানোর ভয়ও কাজ করে। একারণে অনেকসময় কেউ কেউ অগ্রহণযোগ্য আচরণ করে ফেলেন। তাতে সম্পর্ক নষ্ট হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। মনের ভিতরের তীব্র ঈর্ষা এড়াতে কিছু বিষয় মনে রাখা জরুরি। যেমন-

১. মনে মনে আপনি যা অনুভব করছেন সেই অনুযায়ী আচরণ করতে না পারাটা বেশ কঠিন। তারপরও তা নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করতে হবে। মনে রাখবেন, আপনার সঙ্গীরও বিপরীত লিঙ্গের কারও সঙ্গে বন্ধুত্ব কিংবা ভালো সম্পর্ক থাকতে পারে। তার মানে এই নয় যে তিনি আপনাকে ঠকাচ্ছেন। সবাইকে সন্দেহের চোখে দেখা ঠিক নয়।

২. সঙ্গীর সঙ্গে যেকোনো ব্যাপারে খোলাখুলি আলাপ করুন। তার ওপর বিশ্বাস রাখুন। আপনাকে মনে রাখতে হবে সঙ্গীর সঙ্গে আপনি একটা সম্পর্কে জড়িয়েছেন। হতে পারে সেটা প্রেম কিংবা বিয়ে। তাই তার সঙ্গে  আপনার কথা শেয়ার করুন।

৩. যদি আপনার মনে হয়, আপনার সঙ্গী এমন কিছু করছে যা আপনাকে ঈর্ষাপরায়ণ করছে তাহলে সঙ্গীর কাছে তা প্রকাশ করুন। তবে তা যেন শিশুসুলভ না হয় সেদিকে খেয়াল রাখুন। আবার কৌতুক করে সঙ্গীকে বোঝাতেও পারেন যখন তিনি অন্য কারও দিকে বেশি মনোযোগ দেন তখন আপনি কেমন ঈর্ষা অনুভব করেন। আপনি হাসতে হাসতে বললে বিষয়টি হয়তো ততটা গম্ভীর হবে না। আপনাদের সম্পর্কের ওপরও তেমন প্রভাব ফেলবে না। কৌশলি হয়ে সঙ্গীকে বোঝাতে পারেন আপনি তাকে কতটা বিশ্বাস করেন। আপনি বলতে পারেন, সঙ্গী কখনোই আপনাকে ঠকাবে না, এই বিশ্বাস আপনার আছে। এ ধরনের উক্তি সঙ্গীকে আপনার প্রতি শ্র্রদ্ধাশীল করে তুলবে।

৪.নিরাপত্তাহীনতা এবং আত্মবিশ্বাস কম থাকলেই মানুষ বেশি ঈর্ষাপরায়ন হয়ে ওঠে। কেউ কেউ আছেন সঙ্গী তাকে ঠকিয়েছেন কিনা তা যাচাই না করেই তাকে আঘাত দিয়ে কথা বলেন। কেউ কেউ নিজের পূর্ব অভিজ্ঞতার জন্যও সঙ্গীকে অবিশ্বাস করেন। এটা মনে রাখা দরকার, বর্তমানের সঙ্গী কিন্তু নতুন একজন। সুতরাং তার সঙ্গে পুরনো সঙ্গীকে এক করে ফেলাটা ঠিক নয়।

৫.নিজের ওপর আস্থা রাখুন। আপনার ভালবাসাই সম্পর্ক টিকিয়ে রাখবে এটা বিশ্বাস করতে শিখুন। প্রবল ঈর্ষাবোধ হলে এটা করাটা হয়তো কঠিন কিন্তু যখন আপনি নিজেকে বিশ্বাস করবেন তখন সম্পর্কে ভাঙ্গন, প্রত্যাখান- পরিস্থিতি যাই হোক না কেন নিজেকে নিয়ন্ত্রণ করতে পারবেন। মনে রাখবেন, অতিরিক্ত ঈর্ষা সম্পর্ক তিক্ত কিংবা ধ্বংস করতে পারে। একারণে সম্পর্ক বাঁচাতে নিজে সতর্ক থাকুন।  সূত্র: হাফপোস্ট

বিষয় : ঈর্ষা সম্পর্কে ঈর্ষা

আরও পড়ুন

মন্তব্য করুন