ঢাকা সোমবার, ০৪ মার্চ ২০২৪

লিপু প্রধান নির্বাচক হবেন, জানতেন না সুজন

লিপু প্রধান নির্বাচক হবেন, জানতেন না সুজন

ছবি- সংগৃহীত

ক্রীড়া প্রতিবেদক

প্রকাশ: ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ | ১৩:৪৪ | আপডেট: ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ | ১৪:১৮

লম্বা সময় ধরে বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের নির্বাচক হিসেবে কাজ করে আসছেন মিনহাজুল আবেদিন নান্নু, হাবিবুল বাশার সুমন ও আব্দুর রাজ্জাক। যেখানে প্রধান নির্বাচক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছিলেন নান্নু। সোমবারের বোর্ড মিটিংয়ে নান্নুকে অব্যাহতি দিয়েছে বিসিবি। নতুন করে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে বিসিবির সাবেক পরিচালক গাজী আশরাফ হোসেন লিপুকে। যেখানে তার সাথে আছেন হান্নান সরকার ও আব্দুর রাজ্জাক।

মিনহাজুল আবেদিন নান্নু বাদ যাচ্ছেন, অনেকটা অনুমেয়ই ছিল। তবে মোটেও আলোচনায় ছিলেন না আশরাফ লিপু। একেবারেই আলোচনার বাইরে থেকে এসে প্রধান নির্বাচকের পদ বাগিয়ে নিয়েছেন তিনি। এমনকি লিপুকে প্রধান নির্বাচকের পদে দেখে বিস্ময় প্রকাশ করেছেন বিসিবির ক্রিকেট অপারেশন্স কমিটির ভাইস চেয়ারম্যান খালেদ মাহমুদ সুজন। তার দাবি, লিপু প্রধান নির্বাচক হতে পারেন এমনটাও শোনেননি।

দুর্দান্ত ঢাকার কোচ হয়ে বিপিএলে ব্যস্ত সময় কাটছে সুজনের, এ মুহূর্তে দল নিয়ে অবস্থান করছেন চট্টগ্রামে। সেখানেই গণমাধ্যমের সাথে আলাপকালে সুজন বলেন, ‘লিপু ভাইয়ের অনেক ক্রিকেট মেধা। আমাদের অনেক সিনিয়র। বাংলাদেশের ক্রিকেটকে অনেকদিন ধরে দেখছেন। জাতীয় দলের অধিনায়ক ছিলেন, আবাহনীর অধিনায়ক ছিলেন। উনাকে নিয়ে কোনো প্রশ্ন থাকতে পারে না। উনি আসাতে ভালো হতে পারে। নির্বাচক হতে পারেন বা এমন কিছু আমি আগে শুনিনি। খুবই চমকপ্রদ সিদ্ধান্ত এসেছে বিসিবি থেকে। ’

সুজন বলেন, ‘লিপু ভাইয়ের ক্রিকেট মেধা, বিচক্ষণতা, বুদ্ধিমত্তা নিয়ে কোনো প্রশ্ন থাকতে পারে না। জাতীয় দলের অধিনায়ক ছিলেন, আবাহনীর অধিনায়ক ছিলেন। উনাকে নিয়ে কারো দ্বিমত থাকতে পারে না। তবে আমার জন্য এটা একটু সারপ্রাইজিং। কারণ লিপু ভাই নির্বাচক হতে পারেন বা এমন কিছু আমি আগে শুনিনি।’

মূলত ক্রিকেট অপারেশন্সের অধীনেই কাজ করে থাকেন জাতীয় দলের নির্বাচকরা। তাই সুজন প্রশ্ন তুলেছেন ক্রিকেট অপারেশন্স ভাইস চেয়ারম্যান হিসেবে তার থাকার যৌক্তিকতা নিয়েই। তিনি বলেন, ‘আমি তো পরিষ্কার করলাম আমি জানি না কিছু। আমি ক্রিকেট অপারেশন্সের ভাইস চেয়ারম্যান আমি জানিই না, ক্রিকেট অপারেশন্স নির্বাচক নিচ্ছে- কে হচ্ছে। খুবই অবাক করার মতো। আমার এই পজিশনে থাকার প্রয়োজন কি সেটাও জানি না আসলে।’

তবে প্রধান নির্বাচক লিপুকে নিয়ে আশাবাদী সুজন। তিনি বলেন, ‘সত্যি কথা বলতে, ক্রিকেট যিনি খেলেছেন তার ক্রিকেট জ্ঞ্যান নিয়ে প্রশ্ন তোলা তো অস্বাভাবিক। অধিনায়কত্ব করেছেন, এত বছর ধরে ক্রিকেটের সাথে ওতপ্রোতভাবে জড়িত। যদিও মাঝে উনার বড় একটা গ্যাপ আছে। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে টিভি দেখে তো আমরা সবাই কথা বলতে পারি কিন্তু ঘরোয়া ক্রিকেটে কি হচ্ছে, প্রিমিয়ার লিগ বা আমাদের বয়সভিত্তিক ক্রিকেটে.. তবে আমার মনে হয় না এটা উনার জন্য খুব একটা কঠিন হবে। হয়তো অ্যাডজাস্ট হতে একটু সময় লাগবে।’

আরও পড়ুন

×