ঢাকা বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪

গানাররা এখন নগরপ্রতিদ্বন্দ্বী স্পার্সের সাপোর্টার 

গানাররা এখন নগরপ্রতিদ্বন্দ্বী স্পার্সের সাপোর্টার 

ছবি: ফাইল

স্পোর্টস ডেস্ক

প্রকাশ: ১৪ মে ২০২৪ | ১৩:১৬ | আপডেট: ১৪ মে ২০২৪ | ১৪:১২

ওল্ড ট্রাফোর্ডে স্বাগতিক ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডকে ১-০ গোলে হারিয়ে শিরোপার স্বপ্ন বাঁচিয়ে রেখেছে আর্সেনাল। গত রোববার রেড ডেভিলদের রক্ষণ দুর্বলতার সুযোগে ২০ মিনিটে একমাত্র গোলটি করেন গানার উইঙ্গার লিয়ান্দ্রো ত্রোসার্ত। এ জয়ে ম্যানচেস্টার সিটিকে টপকে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে উঠে গেছে আর্সেনাল। সে সঙ্গে প্রিমিয়ার লিগের শিরোপা লড়াইকে শেষ দিনে টেনে নিয়ে গেল তারা।

পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে উঠে গেলেও আর্সেনাল ভালো করেই জানে, শিরোপাভাগ্য এখন পুরোপুরি তাদের হাতে নেই। ৩৭ ম্যাচে তাদের পয়েন্ট ৮৬। তাদের চেয়ে ১ পয়েন্ট কম নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে আছে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন সিটি। তবে পেপ গার্দিওলার দল ম্যাচ খেলেছে একটি কম। সিটির ম্যাচ বাকি আছে দুটি। এর মধ্যে আজ মঙ্গলবার তারা টটেনহামের বিপক্ষে খেলবে। আগামী রোববার লিগের শেষ দিনে সিটির প্রতিপক্ষ ওয়েস্ট হাম এবং আর্সেনাল খেলবে এভারটনের বিপক্ষে। 

শেষ দিনে শিরোপাপ্রত্যাশী দুই দলই ঘরের মাঠে খেলবে। ঘরের মাঠে শেষ দিনে সিটি ও আর্সেনালের জয়ের সম্ভাবনাই বেশি। আজ সিটি খেলবে টটেনহামের মাঠে, যা সিটির জন্য চ্যালেঞ্জিং। এ আশাতেই বুক বাঁধছে গানাররা। ২০ বছরের শিরোপা-খরা ঘোচানোর জন্য স্পারদের ওপর ভরসা করছে তারা। 

এই যেমন ম্যানইউকে হারানোর পর টটেনহামের সমর্থক বনে গেছেন গানারদের জার্মান স্ট্রাইকার কাই হাভার্টজ, ‘এখন আমি টটেনহামের সবচেয়ে বড় সমর্থক। আশা করছি, ভালো কিছুই হবে। আজ হয়তো আমরা নিজেদের সেরাটা খেলতে পারিনি। তবে প্রয়োজনীয় ৩ পয়েন্ট ঠিকই তুলে নিয়েছি। এখন সিটির হোঁচটের অপেক্ষায় আছি।’ 

আর্সেনাল বস মিকেল আর্তেতা অবশ্য ইতিহাস গড়ার আনন্দে আছেন। ম্যানইউর বিপক্ষে জয়টি ছিল এবারের লিগে তাদের ২৭তম জয়। এক মৌসুমে এটাই আর্সেনালের সর্বোচ্চ জয়। ২০০৩–০৪ মৌসুমে অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন হওয়ার সময়ও ২৬ ম্যাচ জিতেছিল আর্সেন ওয়েঙ্গারের আর্সেনাল। তাই তো ভীষণ খুশি আর্তেতা, ‘প্রিমিয়ার লিগে এটা আমাদের ২৭তম জয়। এটা এই ফুটবল ক্লাবের ১৩০ বছেরর ইতিহাসে এক মৌসুমে সবচেয়ে বেশি জয়। এটা উন্নতি নয়, এটা ইতিহাস।’ 

কিন্তু এই ইতিহাস গড়েও চ্যাম্পিয়ন হওয়া নিয়ে অনিশ্চয়তায় তারা। সিটি যদি তাদের আগামী দুই ম্যাচের যে কোনো একটিতে পয়েন্ট হারায়, তাহলেই আর্সেনালের সামনে সুযোগ আসবে। সিটি যে কোনো এক ম্যাচ ড্র করলেই দুই দলের পয়েন্ট সমান হয়ে যাবে। প্রিমিয়ার লিগে পয়েন্ট সমান হলে দেখা হয় গোলপার্থক্য; যেখানে এগিয়ে আছে আর্সেনাল (+৬১)। সিটি (+৫৮) অবশ্য খুব একটা পিছিয়ে নেই। তাই রোমাঞ্চকর এক সমাপ্তির দিকে এগিয়ে চলছে প্রিমিয়ার লিগ। 

আরও পড়ুন

×