ঢাকা সোমবার, ২০ মে ২০২৪

তথ্য বোর্ডে তথ্য নেই

তথ্য বোর্ডে তথ্য নেই

দুমকীর শ্রীরামপুর ইউনিয়ন পরিষদের সাঁটানো তথ্য শূন্য কৃষি আবহাওয়া তথ্য বোর্ড সমকাল

দুমকী (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি

প্রকাশ: ০৪ আগস্ট ২০২৩ | ১৮:০০

কৃষি আবহাওয়াবিষয়ক নির্ভরযোগ্য তথ্য কৃষকের কাছে পৌঁছে দিতে দেশের বিভিন্ন স্থানের মতো দুমকী উপজেলার পাঁচ ইউনিয়নেও স্থাপন করা হয় কৃষি আবহাওয়ার তথ্য বোর্ড। বোর্ডে রয়েছে কৃষিভিত্তিক আবহাওয়ার হালনাগাদ তথ্যের নানা ছক। এ ছাড়া রয়েছে রেইন গজ মিটার ও সৌরবিদ্যুতের প্যানেল। কিন্তু এসব কোনো কাজে আসছে না কৃষকদের। বোর্ডের তথ্য হালনাগাদ করা হয় না। ব্যবহার না থাকায় অকেজো হয়ে পড়েছে অন্য যন্ত্রপাতিগুলোও।

 উপজেলার শ্রীরামপুর, আংগারিয়া, মুরাদিয়া, পাঙ্গাশিয়া ও লেবুখালী ইউনিয়ন পরিষদে বিশ্বব্যাংকের সহায়তায় তথ্য বোর্ড স্থাপন করা হয়। প্রকল্পের আওতায় প্রতিটি বোর্ড স্থাপনে অন্তত ১২ হাজার টাকা খরচ হয়েছে। কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর ও বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদপ্তরের নেওয়া প্রকল্পটির উদ্দেশ্য ছিল কৃষকদের বায়ুপ্রবাহ, আর্দ্রতা, বৃষ্টিপাতসহ আবহাওয়ার পূর্বাভাস দেওয়া। যাতে প্রান্তিক কৃষক ফসল কাটা-তোলার ব্যাপারেও আগাম সতর্কতা অবলম্বন করতে পারেন। কিন্তু প্রকল্প শুরুর পর তদারকি এবং প্রচার না থাকায় এ বিষয়ে কিছুই জানেন না স্থানীয় কৃষকরা।

শ্রীরামপুর ইউনিয়নের জামলা গ্রামের কৃষক আরিফ উদ্দিন বলেন, আষাঢ়-শ্রাবণ দুই মাস ভরা বর্ষাকাল। এই সময় বেশি প্রয়োজন আবহাওয়ার খবর জানা। এর জন্য যে একটি বোর্ড আছে এটাই শুনলাম প্রথম।

এ ইউনিয়ন পরিষদের সচিব মুশফিকুর রহমান সুমন বলেন, কৃষি অফিস থেকে পরিষদে বোর্ডটি লাগিয়ে দিয়ে গেছে। কী করতে হবে সে বিষয়ে আমাদের ধারণা দেওয়া হয়নি।

মুরাদিয়া ইউনিয়নে দায়িত্বপ্রাপ্ত উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা মোশারেফ হোসেন বলেন, আবহাওয়া অধিদপ্তর থেকে এখন কোনো তথ্য পাঠায়নি। তাই বোর্ডের তথ্য হালনাগাদ করা সম্ভব হয় না। তবে জরুরি বার্তা থাকলে কৃষকদের মোবাইল ফোনে জানিয়ে দেওয়া হয়।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো. ইমরান হোসেন বলেন, কৃষকদের মোবাইল ফোনের মাধ্যমে তথ্য জানিয়ে দেওয়া হয়। তাই বোর্ড হালনাগাদ করার প্রয়োজন পড়ে না।

আরও পড়ুন

×