ঢাকা শনিবার, ২৫ মে ২০২৪

জিমে গোপনে নারীর ভিডিও ধারণ, ছাত্রলীগ নেতাসহ গ্রেপ্তার ৩

জিমে গোপনে নারীর ভিডিও ধারণ, ছাত্রলীগ নেতাসহ গ্রেপ্তার ৩

জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি হাবিবুল্লাহ ভূঁইয়া বিপ্লব। ফাইল ছবি

নিজস্ব প্রতিবেদক, ব্রাহ্মণবাড়িয়া

প্রকাশ: ৩১ আগস্ট ২০২৩ | ১১:০৫ | আপডেট: ৩১ আগস্ট ২০২৩ | ১১:০৯

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় শহরের একটি জিমে (ব্যায়ামাগারে) গোপনে নারীর ‘আপত্তিকর’ ভিডিও ধারণ ও মারধরের অভিযোগে জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতিসহ ৩ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। বুধবার সন্ধ্যায় শহরের মৌলভীপাড়ায় ‘বিএস ফিটনেস সেন্টার’ নামক জিমে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার পর ৯৯৯-এ কল করলে ভুক্তভোগীদের উদ্ধার করে পুলিশ। 

গ্রেপ্তার ব্যক্তিরা হলেন- জিমের পরিচালক ও জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি হাবিবুল্লাহ ভূঁইয়া বিপ্লব, জিমের ফিটনেস ট্রেইনার মিতু আক্তার ও সাইম। 

এ ঘটনায় বুধবার রাতেই ভুক্তভোগী গৃহবধূর আত্মীয় ব্রাহ্মণবাড়িয়া আদালতের এপিপি মাসুদুর রহমান গ্রেপ্তার ৩ জনসহ ৪ জনের নাম উল্লেখ ও অজ্ঞাত আরও ৮-৯ জনকে আসামি করে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানায় মামলা করেন। 

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, ভুক্তভোগী গৃহবধূ ও তার বোন শহরের মৌলভীপাড়ায় বিএস ফিটনেস সেন্টারে নিয়মিত ব্যায়াম করেন। মেয়েদের জন্য আলাদা ব্যায়ামের ব্যবস্থা থাকায় তারা সেখানে ভর্তি হন। তবে জিমের ট্রেইনার মিতু আক্তার গোপনে ভিডিও ধারণ করেন বলে তাদের সন্দেহ হয়। ঘটনার দুই দিন আগে তারা নিশ্চিত হন ট্রেইনার গোপনে তাদের ভিডিও ধারণ করেছেন। বুধবার বিকেলে তারা ট্রেইনারকে ভিডিও করার কথা জিজ্ঞেস করেন। এ নিয়ে তাদের মধ্যে বাকবিতণ্ডা হয়। পরে ট্রেইনার মিতু জিমের পরিচালক জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি হাবিবুল্লাহ ভূঁইয়া বিপ্লবকে বিষয়টি জানান। এসময় ট্রেইনারকে নিয়ে ছাত্রলীগ নেতা বিপ্লব ভুক্তভোগীদের কাছে যান। সেখানে মিতু ওই গৃহবধূর চুলের মুঠি ধরে মারধর শুরু করেন। এর একপর্যায়ে শহরের উত্তর পৈরতলার বাসিন্দা সোহেল মিয়া তাদের রক্ষা করতে গেলে বিপ্লবসহ তার সহযোগীরা সবাইকে লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে আটকে রাখেন। এই অবস্থায় ভুক্তভোগীর পরিবারের লোকজন এলে তাদের জিমের ভেতরে ঢুকতে দেওয়া হয়নি। 

পরে ৯৯৯-এ কল দিলে সদর মডেল থানা পুলিশ ভুক্তভোগী গৃহবধূ, তার বোন ও সোহেলকে উদ্ধার করে। এ সময় জিমের পরিচালক ও জেলা ছাত্রলীগের সহসভাপতি হাবিবুল্লাহ ভূঁইয়া বিপ্লব, ট্রেইনার মিতু আক্তার এবং সাইমকে আটক করে থানায় নেওয়া হয়। পরে গুরুতর আহত গৃহবধূ ও সোহেলকে হাসপাতালে পাঠানো হয়।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আসলাম হোসাইন জানান, ভুক্তভোগী নারীর পরিবারের পক্ষ থেকে মামলা করা হয়েছে। এ ঘটনায় জিমের পরিচালক ও জেলা ছাত্রলীগের সহসভাপতি হাবিবুল্লাহ ভূঁইয়া বিপ্লবসহ ৩ জনকে গ্রেপ্তার করে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

আরও পড়ুন

×