ফ্রান্সের বিশ্বকাপ জয়ী মিডফিল্ডার পল পগবা ইনজুরিতে পড়েছেন। ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড থেকে জুভেন্টাসে ফিরেছেন তিনি। দলের সঙ্গে প্রাক মৌসুমের প্রীতি ম্যাচের জন্য ছিলেন লস অ্যাঞ্জেলেসে। সেখানে অনুশীলনে হাঁটুর ইনজুরিতে পড়েছেন ২৯ বছর বয়সী তারকা। 

সংবাদ মাধ্যম লা গেজেত্তে দেল স্পোর্টস দাবি করেছে, তার হাঁটুর ওই ইনজুরি বেশ গুরুতর।  শঙ্কা সত্যি হলে, ২০২৩ সালের আগে তিনি মাঠে ফিরতে পারবেন না। অর্থাৎ কাতারে অনুষ্ঠিত চলতি বছরের নভেম্বরের ফুটবল বিশ্বকাপে অনিশ্চিত তিনি। ফ্রান্স দলের জন্য যা বড় ধাক্কা। 

পল পগবা এরই মধ্যে তার ইনজুরির বিষয়ে নিশ্চিত হতে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করিয়েছেন। এখন চিকিৎসা ব্যবস্থা কী হবে সেটা ঠিক করতে একজন পরামর্শকের স্মরণাপন্ন হবেন। তার অস্ত্রোপচারের দুটি পথ খোলা আছে। 

এর মধ্যে একটি হলো হাঁটুর ক্ষতিগ্রস্ত তন্তু সরিয়ে ফেলা। যেটা করলে তার সেরে উঠতে দেড় থেকে আড়াই মাস সময় লাগতে পারে। তবে ওই চিকিৎসা মূলক কম বয়সী অ্যাথলেটসদের জন্য বেশি কার্যকরি। এছাড়া মিনাসকাস সরিয়ে ফেললে গতি কমে যেতে পারে পগবার। 

অন্যটি হলো ছিড়ে যাওয়া হাঁটুর তন্তু অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে সেলাই করা বা জোড়া লাগিয়ে দেওয়া। যা থেকে সেরে উঠতে লেগে যেতে পারে প্রায় পাঁচ মাস। এখন পগবার পরিস্থিতি বুঝে চিকিৎসক সিদ্ধান্ত নেবেন তার জন্য কোনটা ভালো হবে। 

এক বিবৃতিতে জুভেন্টাস জানিয়েছে, অনুশীলনে হাঁটুতে ব্যথা অনুভব করছিলেন পগবা। সেজন্য তাকে পরীক্ষা করানো হয়েছে। পরীক্ষায় তার হাঁটুর ইনজুরি ধরা পড়েছে। দ্রুতই তিনি বিশেষজ্ঞ অর্থডেপিক-এর পরামর্শ নেবেন। চিকিৎসার প্রয়োজনে তাকে দলের ডালাস সফরে রাখা হচ্ছে না।