ঢাকা বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

যুবককে কুপিয়ে হত্যা, বিদ্যুৎ বিল সূত্রে শনাক্ত

যুবককে কুপিয়ে হত্যা, বিদ্যুৎ বিল সূত্রে শনাক্ত

প্রতীকী ছবি

নিজস্ব প্রতিবেদক, ময়মনসিংহ

প্রকাশ: ২৮ অক্টোবর ২০২৩ | ২৩:০২ | আপডেট: ২৮ অক্টোবর ২০২৩ | ২৩:০২

ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জে এক যুবককে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। শনিবার উপজেলার সরিষা ইউনিয়নের কুর্শিপাড়া এলাকায় কাঁচামাটিয়া নদীর পাড় থেকে লাশটি উদ্ধার করে পুলিশ। তবে কারা, কী কারণে তাঁকে হত্যা করেছে, সে বিষয়ে এখনও নিশ্চিত হতে পারেনি পুলিশ।

পুলিশ জানায়, নিহত ব্যক্তি উপজেলার মাইজবাগ ইউনিয়নের কুমড়াশাসন গ্রামের মৃত জসিম উদ্দিনের ছেলে সোহেল রানা (২৫)। তিনি ঈশ্বরগঞ্জ পৌর শহরের চালমহাল এলাকার বিকাশ এজেন্ট। শনিবার সকালে সরিষা ইউনিয়নের কুর্শিপাড়া গ্রামের কাঁচামাটিয়া নদীর পাড়ে লাশ পড়ে থাকার খবরে দলে দলে জড়ো হন স্থানীয় লোকজন। যুবকটি আশপাশের এলাকার নন বলে জানান স্থানীয়রা। দা দিয়ে কোপানোর গুরুতর জখমের চিহ্নও রয়েছে তাঁর শরীরে। শরীরের বিভিন্ন অংশসহ ঘাড় ও মাথায় কুপিয়ে ক্ষতবিক্ষত করে তাঁকে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। শরীরে অন্তত ১০টি ক্ষত পায় পুলিশ।

মরদেহের কাছ থেকে একটি দা, একটি মোবাইল ফোন ও একটি মানিব্যাগ পাওয়া যায়। খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠায়।

নিহত ব্যক্তির পরিচয় তাৎক্ষণিক শনাক্ত না হলেও তাঁর পকেট থেকে পাওয়া একটি বিদ্যুৎ বিলের সূত্রে পরিচয় শনাক্ত হয়। ওই বিদ্যুৎ বিলের কপি নিয়ে পল্লী বিদ্যুৎ অফিসের মাধ্যমে ঠিকানা নিশ্চিত করা হয়। পরে কুমড়াশাসন গ্রামে গিয়ে পরিবারকে জানালে থানায় গিয়ে লাশ শনাক্ত করেন নিহত ব্যক্তির চাচা আবু সিদ্দিক।

কুমড়াশাসন গ্রামের বাসিন্দা এখলাছুর রহমান জানান, শনিবার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে স্থানীয় লোকজন কাঁচামাটিয়া নদীতে মাছ ধরতে গেলে নদীর পাড়ে একটি ক্ষতবিক্ষত মরদেহ পড়ে থাকতে দেখে পুলিশে খবর দেন।

নিহত সোহেল কিছুদিন ধরে শ্বশুরবাড়ি পৌর এলাকার চরনিখলা গ্রামে থাকতেন। মাঝেমধ্যে বাড়িতেও যেতেন। শাশুড়ি অসুস্থ থাকায় সেখানে থাকছিলেন। গত শুক্রবার শ্বশুরবাড়ি থেকে দোকানে যান সোহেল। রাতে সেখানেই ফিরবেন বলে জানিয়েছিলেন। কিন্তু রাত ১২টা বেজে যাওয়ায় স্ত্রী মৌসুমী আক্তার ভেবেছিলেন তাঁর স্বামী বাড়ি চলে গেছেন। পরে শনিবার সকালে মৃত্যুর খবর পান।

থানা চত্বরে দাঁড়িয়ে মৌসুমী আক্তার জানান, ১১ মাস আগে বিয়ে হয় তাদের। তাঁর স্বামীকে কারা, কী কারণে হত্যা করল, বুঝতে পারছেন না। হত্যায় জড়িতদের শনাক্ত করে বিচারের দাবি জানান তিনি।

ঈশ্বরগঞ্জ থানার ওসি পি এস এম মোস্তাছিনুর রহমান বলেন, বিদ্যুৎ বিলের একটি কাগজের সূত্রে নিহত ব্যক্তির পরিচয় শনাক্ত করা হয়। হত্যার রহস্য উদ্ঘাটনের চেষ্টা চলছে।

আরও পড়ুন

×