ঢাকা শনিবার, ১৮ মে ২০২৪

বিডিবিও-সমকাল জীববিজ্ঞান উৎসব

প্রশ্নে প্রশ্নে বিজ্ঞানের নানা বিষয় জানলেন শিক্ষার্থীরা

প্রশ্নে প্রশ্নে বিজ্ঞানের নানা বিষয় জানলেন শিক্ষার্থীরা

বিডিবিও-সমকাল জীববিজ্ঞান উৎসবের পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে শনিবার অতিথিদের সঙ্গে বিজয়ীরা। পটুয়াখালীর ছবি - সমকাল

পটুয়াখালী ও রাবি প্রতিনিধি

প্রকাশ: ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ | ১৮:০০

ঘুমালে মানুষ নাক ডাকে কেন? আমরা কেন কার্বন ডাই-অক্সাইড ছাড়ি ও অক্সিজেন গ্রহণ করি কিংবা গরমকালে গা ঘামে কেন?- এমন নানা জিজ্ঞাসার মধ্য দিয়ে বিজ্ঞানের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর জেনেছেন শিক্ষার্থীরা। তাঁদের কৌতূহল মেটানোর এ সুযোগ করে দিয়েছে বিডিবিও-সমকাল জীববিজ্ঞান উৎসব। গতকাল শনিবার উৎসবের রাজশাহী ও বরিশাল আঞ্চলিক পর্ব অনুষ্ঠিত হয়েছে। এর মধ্যে রাজশাহী আঞ্চলিক পর্ব অনুষ্ঠিত হয় রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) স্যার জগদীশ চন্দ্র বসু একাডেমিক ভবনের সামনে। অন্যদিকে, বরিশাল আঞ্চলিক পর্ব অনুষ্ঠিত হয় পটুয়াখালী সরকারি মহিলা কলেজে।
রাজশাহীতে জুনিয়র, সেকেন্ডারি ও সিনিয়র তিন ক্যাটাগরিতে বিভাগের বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ১ হাজার ১৬৫ জন নিবন্ধিত শিক্ষার্থী দিনব্যাপী এই উৎসবে অংশ নেন। এর মধ্য থেকে মোট উপস্থিতির ২০ শতাংশ শিক্ষার্থীকে মেডেল ও সনদপত্র দেওয়া হয়। শিক্ষার্থীদের হাতে সনদ ও মেডেল তুলে দেন সমাজসেবী শাহীন আকতার রেণী। এ সময় তিনি বলেন, 'জীববিজ্ঞান উৎসবে এসে শিক্ষার্থীরা অনেক কিছু শিখতে পেরেছে বলে মনে করি। এসব জ্ঞান তারা বাস্তব জীবনে প্রয়োগ করতে পারবে। আজকের শিশুরা অনেক বেশি ভাগ্যবান। আমরা যে সময় পড়ালেখা করেছি তখন শিক্ষাটা এত সহজ ছিল না। কাজেই এই শিশুরা আমাদের চেয়ে অধিক ভাগ্যবান।'
অলিম্পিয়াডে ১৫০ নম্বরের নৈর্ব্যক্তিক প্রশ্নের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। পরে অংশগ্রহণকারীদের নানা প্রশ্নের জবাব দেন রাবির প্রাক্তন উপ-উপাচার্য অধ্যাপক আনন্দ কুমার সাহা, উদ্ভিদবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক বিধান চন্দ্র দাস, ভেটেরিনারি অ্যান্ড অ্যানিম্যাল সায়েন্সেস অনুষদের ডিন অধ্যাপক জালাল উদ্দীন সরদার, জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং ও বায়োটেকনোলজি বিভাগের অধ্যাপক আশাদুল ইসলাম, ভূগোল ও পরিবেশবিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক শীতাংশু কুমার পাল, প্রাণিবিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক মাহবুব হাসান, অধ্যাপক কামরুল হাসান প্রমুখ।
এর আগে সকালে রাবির স্যার জগদীশ চন্দ্র বসু একাডেমিক ভবন চত্বরে উৎসবের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান হয়। পায়রা উড়িয়ে উৎসবের উদ্বোধন করেন রাবি উপাচার্য অধ্যাপক গোলাম সাব্বির সাত্তার। এ সময় বিশেষ অতিথি ছিলেন উপ-উপাচার্য অধ্যাপক সুলতান-উল-ইসলাম, জীববিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক শহিদুল আলম। আরও উপস্থিত ছিলেন প্রাণিবিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক হাবীবুর রহমান, কৃষি অনুষদের ডিন অধ্যাপক আব্দুল আলীম, ভেটেরিনারি অ্যান্ড অ্যানিম্যাল সায়েন্সেস অনুষদের ডিন অধ্যাপক জালাল উদ্দীন সরদার, প্রাণরসায়ন ও অনুপ্রাণ বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক রেজাউল করিম, সমকালের রাজশাহী ব্যুরোপ্রধান সৌরভ হাবিব প্রমুখ।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি উপাচার্য অধ্যাপক গোলাম সাব্বির সাত্তার সমকালের প্রশংসা করে বলেন, 'ভালো কাজ যেখানে সমকাল সেখানে। সমকাল বিভিন্ন সময়ই মানুষের জন্য কাজ করে থাকে। যা অবশ্যই প্রশংসা পাওয়ার যোগ্য। এমন কাজের জন্য আমি আয়োজকদের ধন্যবাদ জানাই। আগামীর জন্য শিশুদের তৈরি করাতে এই ধরনের অলিম্পিয়াড গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।'
পটুয়াখালীতে জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মধ্য দিয়ে বিডিবিও-সমকাল জীববিজ্ঞান উৎসবের উদ্বোধন করেন সমাজসেবক ও আজমত গ্রুপের চেয়ারম্যান ড. মো. আতহার উদ্দিন সিআইপি।
এ বছর বরিশাল অঞ্চলের অলিম্পিয়াডে অংশগ্রহণের জন্য জুনিয়র ক্যাটাগরিতে ১৬৪, সেকেন্ডারি ক্যাটাগিরিতে ৩৪৭ ও সিনিয়র ক্যাটাগরিতে ৮৭ শিক্ষার্থী রেজিস্ট্রেশনের মাধ্যমে অংশগ্রহণ করছেন। তাঁদের মধ্যে ৫৫৪ শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করেন নৈর্ব্যক্তিক প্রশ্নের পরীক্ষায়।
উৎসবে ১০৯ জনকে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়। এর মধ্যে জুনিয়র ক্যাটাগরিতে ৩০, সেকেন্ডারি ক্যাটাগরিতে ৫৪ জন এবং সিনিয়র ক্যাটাগরিতে ২৫ জন বিজয়ী হয়। পরে বিজয়ী শিক্ষার্থীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি ড. মো. আতহার উদ্দিন সিআইপি।
বাংলাদেশ বায়োলজি অলিম্পিয়াড (বিডিবিও) এবং সমকাল যৌথভাবে এ উৎসবের আয়োজন করেছে। এতে কারিগরি সহযোগিতায় রয়েছে ল্যাববাংলা ও প্রশিক্ষণ সহযোগী হিসেবে আছে ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব বায়োটেকনোলজি।

আরও পড়ুন

×